বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করণীয় কি?

কোন সমস্যা এর কারণে যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হতে বসে; এবং আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স যদি খুব বেশি পরিমাণে থাকে তাহলে আপনি নিশ্চয়ই এই বন্ধ হওয়া আটকাতে চাইবেন এবং বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করণীয় সম্পর্কে রিসার্চ করবেন।

 

আপনার কোন ভুল ত্রুটির কারণে বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয়ে গেলে; আপনি নিশ্চয়ই বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করণীয় সম্পর্কে জানতে চাইবেন। যাতে করে পুনরায় আপনি বিকাশ একাউন্ট ফেরত আনতে পারেন।

বিভিন্ন কারনে আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এবং বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার পরে করণীয় সম্পর্কে এই পোস্টটিতে সম্পূর্ণ আলোচনা করা হবে।

 

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ কেন হয়?

 

মূলত দুটি উপায়ে আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। যার মধ্যে একটি হলোঃ আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী; আর অন্যটি হলো আপনার অনিচ্ছায়।

আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী বলতে; আপনি যদি বুঝে-শুনেই আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে তার পরে বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করে দেন; তাহলে এটা অন্য আরেকটি ব্যাপার।

তবে আনফরচুনেটলি যদি কোন ত্রুটির কারণে আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হয়ে যায়; তাহলে আপনি নিশ্চয়ই তখন বিকাশ একাউন্ট পুনরায় চালু করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাইবেন।

আর অনেকেই আছেন ইচ্ছামত বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার পরে; যখন এটির প্রয়োজন আরো বেশি উপলব্ধি করে থাকেন তখন আবার পুনরায় বিকাশ একাউন্ট সেটআপ করার কথা চিন্তা ভাবনা করেন।

আপনি যদি ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃত বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার পরে পুনরায় আবার খুলতে চান তাহলে আপনাকে সিম্পল কয়েকটি স্টেপ ফলো করতে হবে।

 

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করনীয়

 

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার পরে আপনাকে এই অ্যাকাউন্টটি পুনরায় সচল করতে হলে যাদের সহযোগিতা নিতে হবে। তারা হলো “বিকাশ সাপোর্ট টিম”।

এখানে একটি বিষয় একেবারে ক্লিয়ারলি বলা যাকঃ আর সেটা হলো বিকাশ সাপোর্টিং ছাড়া আপনার বিকাশ একাউন্ট পুনরায় সেটআপ করতে কেউই পারবে না।

আপনি যদি বিকাশ সাপোর্ট টিমের সহযোগিতা খুব সহজেই আপনার বিকাশ একাউন্ট আবার পুনরায় একটিভ করতে চান তাহলে নিম্নলিখিত পদক্ষেপ অনুসরণ করুন।

  • প্রথমে 16246 এই নাম্বারে কল করুন।
  • যখনই আপনি তাদের বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বারে কল করে দিবেন; তখন আপনি তাদেরকে আপনার সমস্যার কথাটি এক্সপ্লেইন করুন।
  • সমস্যার কথাটি এক্সপ্লেইন বলতে; আপনি যে আনফরচুনেটলি আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হতে দেখেছেন; কিংবা আপনি নিজে থেকে বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছেন সে সম্পর্কে তাদেরকে জানানো।
  • আপনি যখনই এই বিষয়টি তাদের কে জানিয়ে দিবেন তখন তারা নিশ্চয়ই আপনার কাছ থেকে কিছু ডকুমেন্ট নেওয়ার কথা চিন্তা ভাবনা করবে। অবশ্য বাধ্যতামূলক এগুলো আপনাকে দিতে হবে।
  • ডকুমেন্ট হিসেবে আপনি বিকাশ একাউন্টে এনআইডি কার্ড দিয়ে খুলেছেন সেই এনআইডি কার্ডের সমস্ত ইনফরমেশন এবং আপনার ফোন নাম্বার ইনফরমেশন দিতে হবে।
  • এই সমস্ত কিছু পুনর্বিবেচনা করে তারা আপনাকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যদি আপনার বিকাশ একাউন্ট পুনরায় রিসেট করা যায়; তাহলে তা রিসেট করে দিতে সহায়তা করবে।

তবে এখানে অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যে আপনি আবার পুনরায় আপনার বিকাশ একাউন্ট রিসেট করতে সক্ষম হবেন। আর যদি সক্ষম না হন তাহলে বাধ্যতামূলক আপনাকে নতুন আরেকটি বিকাশ একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

আর উপরে উল্লেখিত উপায় আপনি ছেলে খুব সহজেই আপনার বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হওয়ার পর; বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করণীয় সম্পর্কে জেনে আবার পুনরায় একটিভ করতে পারবেন।

আশাকরি বিকাশ একাউন্ট বন্ধ হলে করণীয় সম্পর্কে আপনি জেনে নিতে পেরেছেন; অসংখ্য ধন্যবাদ সাথে থাকার জন্য।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five × three =

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap