মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম

আপনি যদি যেকোনো সিমে মোবাইলে রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিতে হবে।

আপনি হয়তো এই সম্পর্কে অবগত আছেন যে আপনি চাইলে, যেকোনো ফ্লেক্সিলোডের দোকানে গিয়ে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। ঠিক ওইরকম ভাবে আপনি চাইলে নিজ ঘরে বসেও মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

ফ্লেক্সিলোডের দোকানে গিয়ে আপনি যদি মোবাইল রিচার্জ করেন, তাহলে এই কাজটি খুবই সহজ। ঠিক এরকম ভাবে নিজের ঘরে বসে ফ্লেক্সিলোড করা আরো বেশি সহজ।

মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম

আর্টিকেল এর শুরুতেই আলোচনা করা হয়েছে, আপনি চাইলে বিভিন্ন দুইটি উপায় ফ্লেক্সিলড করতে পারবেন অর্থাৎ মোবাইলে টাকা রিচার্জ করতে পারবেন।

এর মধ্যে থেকে একটি হলো ফ্লেক্সিলোডের দোকান থেকে এবং অন্যটি হলো আপনি নিজে থেকে রিচার্জ করতে পারবেন।

ফ্লেক্সিলোডের দোকানে গিয়ে কিভাবে মোবাইল রিচার্জ করতে হয়, সে সম্পর্কে জানানোর খুব একটা প্রয়োজন আছে বলে আমার মনে হয় না।

কারন, যেখানে মোবাইল রিচার্জ করা হয় সেই দোকানে চলে গিয়ে নির্দিষ্ট পরিমাণ অ্যামাউন্ট দিয়ে দিলেই, তারা আপনার প্রয়োজনীয় এমাউন্ট রিচার্জ করে দিবেন। যার জন্য আপনার কোন রকমের দক্ষতার প্রয়োজন নেই।

তবে আপনি যদি ঘরে বসে মোবাইলে ফ্লেক্সিলোড করে নিতে চান কিংবা মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে কিছু পদক্ষেপ অনুসরণ করতে হয়, এবং কিছু ভিন্ন উপায়ে এই কাজটি করে নিতে হয়।

ঘরে বসে মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম

আমি যদি ঘরে বসে মোবাইলে টাকা রিচার্জ করতে চান, তাহলে আপনি চাইলে এই কাজটি আরও দুইটি ভিন্ন উপায়ে করতে পারবেন।

  • মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এর মাধ্যমে।
  • এক সিম থেকে অন্য সিমে রিচার্জ।

উপরে উল্লেখিত দুই উপায়ের মধ্যে থেকে যেকোনো একটি উপায় কিংবা আপনি চাইলে দুটি উপায়ে ব্যবহার করার মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করার কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টের মাধ্যমে

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে যেসমস্ত মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট রয়েছে, সেসমস্ত বিকাশ, রকেট, নগদ এবং উপায় এই সমস্ত একাউন্টের মাধ্যমে আপনি চাইলে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে মোবাইল রিচার্জ করার জন্য বাধ্যতামূলকভাবে কোন একটি মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট আপনার একাউন্ট থাকতে হবে। তাহলেই, আপনি মোবাইল রিচার্জ করার জন্য উপযুক্ত হয়ে উঠবেন।

যদি আপনার যেকোনো একটি মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এ অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে এবং তারপরে ওই মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এর নির্দিষ্ট পরিমান টাকা থাকে, তাহলে আপনি এখান থেকে রিচার্জ করতে পারবেন।

কিভাবে বিভিন্ন রকমের মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে রিচার্জ করে নিতে হয়? সেই রিলেটেড বিস্তারিত নিচে থেকে জেনে নিতে পারেন।

উপরে উল্লেখিত তিনটি উপায়ে কাজে লাগিয়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে আপনার নির্দিষ্ট সিমের রিচার্জ করে নিতে পারবেন।

উপায় মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করার মাধ্যমে কিভাবে মোবাইল একাউন্টে ফ্লেক্সিলোড করে নিতে হয়, সেটি সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই ধারনা আছে।

আপনি চাইলে উপরের উল্লেখিত উপায় মেনু কোড ডায়াল করার মাধ্যমে উপায় মোবাইল ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

এছাড়া উপায় এর যে সফটওয়্যার রয়েছে, সেটি সফটওয়্যার ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই মোবাইল রিচার্জ করে দিতে পারবেন।

উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি যদি মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে বাধ্যতামূলক আপনার কাছে একটি মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থাকা লাগবে এবং তারপরে সে অ্যাকাউন্টে নির্দিষ্ট পরিমাণে এমাউন্ট রিচার্জ করতে হবে।

যদি আপনার কাছে একটি মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এবং সেই একাউন্টে যদি নির্দিষ্ট পরিমাণে এমাউন্ট থেকে থাকে, তাহলে খুব সহজেই ঘরে বসে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

এক সিম থেকে অন্য সিমে মোবাইল রিচার্জ

এছাড়াও আপনার কাছে যদি মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট না থাকে, তাহলে আপনি চাইলে এক সিম থেকে অন্য সিমে মোবাইল রিচার্জ নিতে পারবেন।

এক সিম থেকে অন্য সিমে আপনি যদি মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত আপনার মোবাইল সিম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে।

যখনই আপনি আপনার মোবাইল সিম ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করে নেবেন, তখন সেই মোবাইল সিম থেকে অন্য সিমে টাকা পাঠানোর কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

জিপি সিম থেকে মোবাইল রিচার্জ

আপনি যদি জিপি সিম থেকে মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে আপনাকে প্রধানত রেজিস্ট্রেশন করার কাজ সম্পন্ন করে নিতে হবে।

জিপি সিম রেজিস্ট্রেশন করে নেয়ার জন্য নিম্নলিখিত পদ্ধতি অনুসরণ করে নিতে পারেন।

  • রেজিস্ট্রেশন করার জন্য গ্রাহককে *121*1500# ডায়াল করে ১ প্রেস করতে হবে। গ্রাহক মাইজিপি অ্যাপ থেকেও রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য গ্রাহককে *121*1500# ডায়াল করে ২ প্রেস করতে হবে এবং প্রাপ্ত নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। মাইজিপি অ্যাপ থেকেও ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে।

উপরে উল্লিখিত উপায়ে আপনি চাইলে জিপি সিম মোবাইল রিচার্জ করার জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন এবং সেইসাথে কোডগুলো ডায়াল করে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

রবি সিমে দিয়ে মোবাইল রিচার্জ

এছাড়াও আপনি যদি রবি সিমের মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত রবি মোবাইল এপ ডাউনলোড করে নিতে হবে।

Download For Android

Download For IOS

উপরে উল্লেখিত লিংক থেকে যখনই আপনি সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নেয়ার কাজ সম্পন্ন করে নিবেন, তখন এতে প্রবেশ করুন এবং তারপরে লগ-ইন করে নিন।

লগিন করে নেয়ার কাজ সম্পন্ন হয়ে গেলে উপরের দিকে “RECHARGE NOW” নামের যে অপশন দেখতে পাবেন, সেই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিন।

মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম

এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দেয়ার পরে আপনাকে অন্য আরেকটি পেইজ এ নিয়ে যাওয়া হবে, যেখান থেকে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী এমাউন্ট রিচার্জ করে নিতে পারবেন।

মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম

রবি অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি যদি মোবাইল রিচার্জ করেন, তাহলে বিভিন্ন রকমের পেমেন্ট মেথড এর সাহায্যে মোবাইল রিচার্জ করার কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি চাইলে রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড ব্যবহার করার মাধ্যমে, অ্যাকাউন্ট থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করে নিতে পারবেন।

রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড হলঃ *১৪০*৬*২#

উপরে উল্লেখিত কোডটি ডায়াল করে নিলে নেয়ার পরে, কিছু ইন্সট্রাকশন ফলো করলে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে।

এয়ারটেল থেকে মোবাইল রিচার্জ

এছাড়াও আপনি যদি এয়ারটেল থেকে মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে যে কোড ব্যবহার করে মোবাইলে রিচার্জ করতে পারবেন, সেটি নিজের মেনশন করা হলো।

এয়ারটেল মোবাইল রিচার্জ করার জন্য আপনাকে প্রথমত আপনার মোবাইল ফোনের মেসেজ ওখানে চলে যেতে হবে এবং তারপরে নিম্নলিখিত নির্দেশ অনুযায়ী বিশেষ করে নিতে হবে।

  • প্রথমে আপনার মোবাইলের ম্যাসেজ আপশনে গিয়ে টাইপ করুন PIN এবং 1000 নম্বরে send করুন। ফিরতি sms এ আপনাকে একটি পিন কোড দেওয়া হবে।
  • ধাপ-২ঃ এরপর আবারো ম্যাসেজ অপশনে যেতে হবে। সেখানে টাইপ করুন BTR <space> PIN <space> Receiver number <space> Transfer amount এবং 1000 নম্বরে সেন্ড করুন। sms ফরমেট BTR 847346 016646****9 50

উপরে উল্লেখিত দুইটি ধাপগুলো করার মাধ্যমে আপনি চাইলে খুব সহজেই আপনার এয়ারটেল সিম থেকে অন্য আরেকটি এয়ারটেল সিমের মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

বাংলালিংক সিমের মোবাইল রিচার্জ

এছাড়াও আপনি যদি বাংলালিংক সিমের মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে একটি সিক্রেট কোড ব্যবহার করার মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করে নিতে পারবেন।

বাংলালিংক সিমের মোবাইল রিচার্জ করার নিয়ম জেনে, আপনি যদি মোবাইল রিচার্জ করে নিতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত কোড ডায়াল করে নিতে পারেন।

বাংলালিংক মোবাইল রিচার্জ কোড: *১০০০#

টেলিটকে মোবাইল রিচার্জ করার নিয়ম

এছাড়াও যদি আপনি টেলিটক সিম থেকে অন্য একটি টেলিটক সিমের মোবাইল রিচার্জ করতে চান কিংবা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চান, তাহলে নিম্নোক্ত উপায়ে করতে পারবেন।

মোবাইল রিচার্জ করার জন্য ডাইরেক্টলি আপনার মোবাইল ফোনের ডায়াল প্যাডে চলে যান এবং তারপরে নিম্নলিখিত উপায় রিচার্জ সেন্ড করে নিন।

*124*PIN*amount*number# 

এখানে থাকা পিন সেপশনে 1234 ব্যবহার করতে পারবেন, অ্যামাউন্ট এর জায়গায় আপনার প্রয়োজনীয় এমাউন্ট এবং নাম্বারের জায়গায় আপনি যে নাম্বারে টাকা প্রেরন করতে চান, সেই নাম্বারটি বসিয়ে দিন এবং তার পরে সেন্ড করে নিন।

উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই টেলিটকে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন কিংবা টেলিটক সিমে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ মোবাইলে টাকা রিচার্জ করার নিয়ম জেনে আপনি যদি মোবাইলের চার্জ করতে চান, তাহলে এই কাজটি করার জন্য আপনি চাইলে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ব্যবহার করতে পারেন।

মোবাইল ব্যাংকিং হিসেবে যে সমস্ত অপারেটর রয়েছে, সে সমস্ত অপারেটরে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা থাকলে সেখান থেকে আপনি সহজেই মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

তবে আপনার কাছে যদি মোবাইল ব্যাংকিং এর কোন একটি একাউন্ট না থেকে থাকে, তাহলে আপনি যেই সিমে মোবাইল রিচার্জ করতে চান, সেই সিমের মোবাইল এপ ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

যে কোন সিমের মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করে নিলে সেই মোবাইলের মধ্যে মোবাইলে চার্জ করার মতো একটি অপশন পেয়ে যাবেন। এবং সেই অপশনটি টি ব্যবহার করার মাধ্যমে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Share via
Copy link