চ্যালেঞ্জ করছে ফেসবুক আইডি হ্যাক করার?

Advertisements

আসলে আপনি এরকম অনেক মানুষই পাবেন যারা আপনাকে হুমকি যে তাদের দাবি মেনে না নিলে তারা আপনার ফেইসবুক আইডি হ্যাক করে নেবে।

আসলে যে বা যারা আপনাকে এরকম হুমকি দেয় তারা আসলে কোন রকমেই হ্যাকার নয় তারা আসলে ফাপরবাজ!

একজন প্রফেশনাল হ্যাকার আপনাকে হুমকি দেওয়ার মতো ভুল কাজ কখনোই করবেনা। তারা নীরবে আঘাত হানে!

তো আপনাকে যদি এরকম হুমকি দেয় তাহলে আপনি তার হুমকি কে একসেপ্ট করে নিন! আর বলে দিন পারলে হ্যাক করে দেখাও তোহ?

তবে আপনি যদি নিচের দেওয়া প্রাইভেসি গুলোকে  ফলো  না করেই তার চ্যালেঞ্জ একসেপ্ট করেন তাহলে এটা বোকামী।

Advertisements

কারণ এই হ্যাকাররা আপনার দেওয়া ইনফরমেশন গুলো থেকেই কমতি খুঁজে বের করে এবং আপনার আইডিটাকে খুব সহজেই হ্যাক করে নেয়!

তো আপনি যদি আপনার আইডি তে সিকিউরিটি কোন কমতি রাখতে না চা,, তাহলে এই পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন!

পাসওয়ার্ড: পাসওয়ার্ড হল আপনার আইডি সিকিউরিটি অন্যতম ধাপ! অর্থাৎ আপনার আইডির সিকিউরিটির শতভাগ নির্ভর করে এই পাসওয়ার্ড এর উপর!

অনেক সময় দেখা যায় আমরা কমন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে থাকি। যাতে করে যেকোন হ্যাকাররা ব্রুট ফোর্স অ্যাটাক দিয়ে আপনার ফেসবুক আইডিকে হ্যাক করে নেয়!

তাই আপনার উচিত হবে একটি অন্য কোন ভিন্ন রকমের পাসওয়ার্ড  ব্যবহার করা। এবং এই পাসওয়ার্ড গুলোর মধ্যে আল্ট্রা টেক্সট ব্যবহার করা।

অর্থাৎ আপনি চাইলে নিচের পাসওয়ার্ড এর মত একটি পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে পারেন! এটা শুধুমাত্র একটি ডেমো!

BaNGlaDesH#@1357! ” এরকম পাসওয়ার্ড হলে ফাপরবাজ হ্যাকারদের কোন সাধ্য নেই আপনার ফেইসবুক আইডিকে হ্যাক করার।


ইমেইল: এটাও আপনার ফেসবুক আইডি সিকিউরিটি অন্যতম অংশ।   

কারণ আপনার ইমেইল যদি খুব একটা শক্তপোক্ত না হয় তাহলে যে কেউ আপনার ইমেইল এক্সেস নিয়ে আপনার আইডিটি কে খুব সহজেই হ্যাক করে নিতে পারে!

এখানে ইমেইল টি কে শক্তপক্ত বলতে বুঝানো হয়েছে আপনার ইমেইলে রিকভারি অপশন  কিংবা টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সেট করা। 

যদিও এটা গুগল সিকিউরিটি। আপনার জিমেইল আপনার ফোনে রিমুভ করার পর এড করতে চাইলে আপনাকে অনেক চেক করে।

অ্যাপস কিংবা গেমস: আমরা অনেকেই আছি ফেসবুক এ অযথা অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস গুলা অ্যাড করে রাখি!

এইগুলা মধ্যে অনেকটা আপনার ফেসবুকের অ্যাকাউন্ট এর উপর প্রভাব ফেলতে পারে।

তাই অপ্রয়োজনে অ্যাপস কিংবা গেমস ইনস্টল করার আগে হাজার বার ভাবুন।

ওয়েবসাইটে লগইন: এরকম অনেক ওয়েবসাইট আছে যে ওয়েবসাইটগুলোকে আপনি এক্সেস নিতে হলে অবশ্যই আপনাকে এখানে সাইন আপ করতে হয়।

আমি এটা বলছি না যে আপনি সকল ওয়েবসাইটে লগইন করলেই আপনার ফেসবুক আইডিটি হ্যাক হয়ে যাবে।

তবে যে কোন ওয়েব সাইটে লগইন করার আগে তাদের প্রাইভেসি এবং পলিসি ভালোভাবে দেখে নিতে হবে।

কারণ ওয়েবসাইটের নামে এরকম অনেক ফিশিং সাইট এই ওয়েবে বিদ্যমান! তাই যথাযথ যাচাই করে সিদ্ধান্তটা নিবেন!

তারপর আপনাকে আরো কয়েকটি কাজ করতে হবে সেগুলো আমি নিম্নরূপে দিয়ে দিচ্ছি!

Setting & Security থেকে Security এ গিয়ে সব Setting করে নিন–>^< →Text Message Login Notifications Enable করুন। 

→Email Login Notifications Enable করুন। →Login Approvals On Enable করুন। 

→Active Sessions সব Active Season সিলেক্ট করে Remove করুন।

তাহলেই আপনি যেকোন ফাপরবাজ হ্যাকারের হুমকিকে এক্সেপ্ট করার জন্য পুরোপুরি তৈরি।

অর্থাৎ উপরের কাজগুলো করলে আপনি যে কোন ফাপরবাজের হাত থেকে আপনার ফেসবুক আইডিকে হ্যাক হওয়া থেকে মুক্ত করতে পারবেন।

আসলে এখানে মূলমন্ত্র একটাই- আপনি যদি সব সময় সঠিক পদক্ষেপ নেন! কিংবা সিকিউরিটি সম্পর্কে সচেষ্ট থাকেন তাহলে কারো সাধ্য নেই আপনার ফেসবুক আইডি হ্যাক করা!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + nine =

close
Scroll to Top
Share via
Copy link