জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে |

আপনার তৈরীকৃত জন্ম নিবন্ধন কার্ড এ যদি কোন রকমের ভুলত্রুটি প্রমাণিত হয় তাহলে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন করার প্রয়োজন পড়ে, কারণ জন্ম নিবন্ধন কার্ড এর মাধ্যমে আপনার জাতীয়তা প্রকাশ পায়।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের নিয়মাবলী রয়েছে, সেই নিয়মাবলী মাধ্যমে আপনি চাইলে ঘরে বসে জন্ম সনদ সংশোধন করতে পারবেন কিংবা নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে পৌছে জন্ম সনদ পরিবর্তন করতে পারবেন।

তবে আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আলোচনা করা হবে কিভাবে আপনি চাইলেই খুব সহজে ঘরে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন

খুব সহজে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের কাজ সম্পাদন করার জন্য যে সমস্ত স্টেপ ফলো করতে হবে, সেগুলো নিচে বর্ণনা করা হলো।

অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন পরিবর্তন করার জন্য প্রথমত নিম্নলিখিত লিংক ভিজিট করুন এবং তারপরে step-by-step আমার দেয়ার নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ চালিয়ে যান।

সংশোধন লিঙ্ক

উপরে উল্লেখিত লিংকে ক্লিক করার পরে এই পেজটিকে যখনই আপনি একটু নিচের দিকে স্ক্রল করবেন, তখন আপনার জন্ম নিবন্ধন ইনফো দিয়ে তথ্য সংশোধন করার অপশন পেয়ে যাবেন।

এখানে থাকা প্রথম বক্সটিতে আপনার যে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার রয়েছে জন্ম নিবন্ধন নাম্বারটি যথাযথভাবে বসিয়ে দিতে হবে এবং পরবর্তী বক্সে আপনার জন্ম তারিখ মেনশন করতে হবে।

এই দুটি তথ্য যথাযথভাবে ফিলাপ করে নেয়ার পর “অনুসন্ধান” নামের যে বাটন রয়েছে সেই বাটনটির উপরে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে
জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে

তাহলে নিচে অটোমেটিকলি আপনার নিবন্ধন রিলেটেড তথ্য দেখে নিতে পারবেন; এবারে সমস্ত তথ্য পরিবর্তনের ইচ্ছা পোষণ করে থাকলে “নির্বাচন করুন” নামের যে বাটন রয়েছে সেই বাটন এর উপরে ক্লিক করুন।

নির্বাচন করুন বাটনে ক্লিক করার পরে, আপনি কি সত্যিই তথ্য পরিবর্তন করতে চান? এই মর্মে একটি নোটিফিকেশন আসবে এই নোটিফিকেশন মেসেজগুলো মধ্যে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে
জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে

যখনই কনফার্ম বাটনে ক্লিক করে নিবেন তখন জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার পরে যে কার্যালয় থেকে একটি সংগ্রহ করতে চান, সেটি সিলেক্ট করে নিতে হবে।

অর্থাৎ আপনার দেশ, বিভাগ এবং অন্যান্য যে সমস্ত অ্যাড্রেস রয়েছে সেগুলো যথাযথভাবে ড্রপডাউন মেনু থেকে সিলেক্ট করে নিতে হবে। এবং তার পরে পুনরায় “পরবর্তী” বাটনে ক্লিক করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে
জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন এর মাধ্যমে

যখনই পরবর্তী বাটন এর উপরে ক্লিক করবেন, তখন আপনি যে সমস্ত ডকুমেন্ট পুনরায় সংশোধন করতে চান সেই সমস্ত রকমের পরিপূর্ণভাবে সংশোধন করে নিন।

মনে রাখবেন, এখানে যে সমস্ত তথ্য আপনি সংশোধন করবেন সে সমস্ত তত্ত্বের সমন্বয় আপনার পরবর্তী জন্ম নিবন্ধন কার্ড ছাপানো হবে। যা আপনি নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদ থেকে কালেক্ট করতে পারবেন।

আপনি চাইলে এখানে নতুন তথ্য যুক্ত করতে পারবেন এবং আপনার যাবতীয় ডিটেলস পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

সমস্ত তথ্য যথাযথভাবে সম্পাদন করার পরে পুনরায় “পরবর্তী” বাটনে ক্লিক করুন এবং তারপরে নিবন্ধন সংশোধনের পরবর্তীতে সমস্ত স্টেপ রয়েছে সেগুলো সম্পাদন করুন।

এখানে একটি বিষয় অবশ্যই মনে রাখা দরকার আর সেটি হলো, একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ চার বার জন্ম নিবন্ধন সনদ সংশোধন করতে পারবে। কেউ চারবারের অধিক সময় জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন না।

উপরে যে কয়টি স্টেপ এর কথা মেনশন করা হয়েছে, সে সমস্ত স্টেপ যথাযথভাবে সম্পাদন করে নিলে পরবর্তীতে সমস্ত স্টেপ রয়েছে সেগুলো আপনি নিজে থেকে করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের কাজ সম্পন্ন করে নেয়ার পরে এটি কয়েকদিনের মধ্যে আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে এসে জমা হবে এবং এখান থেকে আপনি এটি কালেক্ট করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম ডাউনলোড

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইনে মাধ্যমে করার জন্য প্রথমত জন্ম সনদ সংশোধনের যে পিডিএফ ফাইল রয়েছে সেটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

Download Form

উপরে উল্লেখিত লিংক থেকে যখনই আপনি জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফরম এর যে পিডিএফ ফরমেট রয়েছে সেটি ডাউনলোড করে নিবেন তখন এটি অনলাইনের মাধ্যমে ফিলাপ করতে পারবেন।

অনলাইনের মাধ্যমে ফিলাপ করতে সমস্যা হলে আপনি চাইলে এই ফরমটি ডাউনলোড করার পরে প্রিন্ট আউট করে নিন এবং তারপরে ঘরে বসেই ফিলাপ করে নিন।

যখনই সংশোধিত ফ্রম যথাযথ তথ্য দিয়ে ফিলাপ করে নেবেন, তখন আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে যোগাযোগ করুন এবং তথ্য পরিবর্তন করতে তাদের সহায়তা নিন।

মূলত উপরে উল্লেখিত উপায় জন্ম নিবন্ধন সনদ এর সমস্ত রকমের তথ্য পরিবর্তন করা যাবে। তবে তথ্য পরিবর্তনের ক্ষেত্রে অবশ্যই একটি ভ্যালিড ডকুমেন্ট প্রদান করতে হবে, যা অনুসারে তথ্য পরিবর্তন করতে চান।

আর উপরে উল্লেখিত যে সংশোধন ফরম রয়েছে সেই ফরমটি যথাযথভাবে ফিলাপ করে আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে জমা দিলেই জন্ম নিবন্ধন কার্ড সংশোধন হয়ে যাবে।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি কত

আমাদের মধ্যে যে বা যারা জন্ম নিবন্ধন পরিবর্তন করতে চান, তারা জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ফি কত সেই সম্পর্কে জেনে নিতে চান।

মূলত বাংলাদেশ সরকারের বেঁধে দেয়া যে জন্ম নিবন্ধন পরিবর্তনের ফী রয়েছে সেটি হল ৫০ টাকা; অর্থাৎ মাত্র ৫০ টাকা কিংবা ১ মার্কিন ডলার এর মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে পারবেন।

মূলত জন্ম নিবন্ধন পরিবর্তন কিংবা এই রিলেটেড আরো যে সমস্ত ফী রয়েছে সেগুলোর পরিমাণ ভিন্ন । এছাড়াও জন্ম নিবন্ধন রিলেটেড অনেক কার্যাবলী রয়েছে যেগুলো কোনো রকমের ফী ছাড়া করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন ফি এবং এই রিলেটেড সমস্ত প্রশ্নের যথাযথ উত্তর জেনে নেয়ার জন্য নিম্নলিখিত লিংক ভিজিট করুন।

সংশোধন ফী

উল্লেখিত লিংকে ভিজিট করার মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন রিলেটেড যে সমস্ত প্রশ্ন এবং ফী রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে পরিপূর্ণ তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 5 =

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap