ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট এর লিস্ট

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে ছবি ইডিট করতে চান তাহলে নিশ্চয়ই ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট এর মধ্যে যে সমস্ত ওয়েবসাইট সবচেয়ে কার্যকরী রয়েছে সেগুলো খুজে নিতে চাইবেন।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে যে সমস্ত ওয়েবসাইট সবচেয়ে বেশী কার্যকরী এবং যেগুলো আপনার কাজে আসবে সে সমস্ত ওয়েবসাইট সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করা হবে।

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজেই ছবি এডিট করতে চান, তাহলে এই সমস্ত ওয়েবসাইটগুলো ব্যবহার করতে পারবেন এবং এগুলোর মাধ্যমে আপনার কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট কি ফ্রি?

ছবি এডিট করার মত যে সমস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে সে সমস্ত ওয়েবসাইটগুলো আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে এখানে আরেকটি বিষয় বলে রাখা ভালো আর সেটি হল, এসমস্ত ওয়েবসাইটে এরকম অনেক ফিচার রয়েছে যেগুলো আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে তাদের প্রিমিয়াম প্ল্যান ক্রয় করে নিতে হবে।

তবে যে সমস্ত ফিচারস ব্যবহার না করলেই নয়, সেগুলো ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।  এবং এখানে যে সমস্ত ফিচারস রয়েছে সেগুলো অনেকটাই ফ্রী।

সেজন্য প্রিমিয়াম কোন ফিচারস যদি আপনি ব্যবহার করতে চান সেটা আপনার অ্যাডভান্স কোন কাজের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন। স্বাভাবিক ভাবে ব্যবহার করার জন্য যে সমস্ত বিষয়াবলী রয়েছে সেগুলো ফ্রিতে ব্যবহার করা যাবে।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে ছবি এডিট করতে চান, তাহলে ছবি এডিট করার যে সমস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য নিচে বর্ণনা করা হলো।

Pixlr

অনলাইনে ছবি এডিট করার জন্য একটি অসাধারণ ওয়েবসাইট হল Pixlr. আপনি যদি ছবি এডিট প্রেমী হয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চয়ই এই শব্দটির সাথে পরিচিত।

সে যাই হোক আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে ছবি ইডিট করতে চান তাহলে এই প্লাটফর্মে ব্যবহার করতে পারেন। এ মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই অনলাইনের মাধ্যমে ছবি এডিট করতে পারবেন।

ছবি এডিট করার জন্য আপনাকে কোনরকমে লগইন কিংবা সাইনআপ করতে হবে না। লগইন এবং সাইন আপ করা ছাড়াই আপনি এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছবি এডিট করতে পারবেন।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট এর লিস্ট

ওয়েবসাইটের মধ্যে রয়েছে কিছু প্রিমিয়াম ফিচারস, যেগুলো আপনাকে ক্রয় করে নিতে হবে। তবে আপনি যদি প্রেমিয়াম ভার্শন ক্রয় না করতে চান তাহলে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন।

কারণ, এই ওয়েবসাইটে যে সমস্ত ফ্রি ফিচারস রয়েছে সেগুলো ব্যবহারযোগ্য এবং এর মাধ্যমেই আপনি একটি সম্পূর্ণ ছবি এডিট করতে পারবেন।

Fotor

অনলাইনের মাধ্যমে ছবি এডিট করার জন্য আরেকটি অসাধারণ ওয়েবসাইট এর নাম হলো Fotor. ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছবি এডিট করতে পারবেন।

একটি ফটো এডিটিং টুলসে যে সমস্ত ফিচারস গুলো থাকা দরকার, প্রায় প্রত্যেকটি ফিচারস আপনি এই অ্যাপসটির মধ্যে পেয়ে যাবেন।

বলাবাহুল্য এই অ্যাপসটি আপনি একদম ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন, এবং এটি ব্যবহার করে আপনার ছবি এডিট করার জন্য কোন রকম টাকা পয়সা খরচ করতে হবে না।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট এর লিস্ট

এছাড়াও আপনি চাইলে এ ওয়েবসাইটের ফটো এডিটিং এর জন্য যে এপ বরাদ্দ রয়েছে, সেই অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তাহলে আপনি আরও বেশি ভালো ইউজার এক্সপেরিয়েন্স পাবেন।

তবে আপনি যদি অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে না চান, তাহলে তাদের যে ওয়েব ভিউ রয়েছে, সেখান থেকে ছবি এডিট করে নিতে পারবেন।

IloveImg

অনলাইনের মাধ্যমে ফ্রিতে এবং একইসাথে প্রিমিয়াম ভার্শন করে করার মাধ্যমে ছবি এডিট করে নেয়ার জন্য যে সমস্ত টুল রয়েছে সেগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি হলো Iloveimg.

এই টুলস এর মাধ্যমে আপনি চাইলে ফ্রিতে ছবি এডিট করতে পারবেন।

ছবি এডিট করে নেয়ার জন্য এখানে আপনি বিভিন্ন রকমের ফিচারস পাবেন, যে সমস্ত ফিচারস আপনি ফ্রিতে ব্যবহার করে নিতে পারবেন এবং স্বাচ্ছন্দ্য মতো ছবি এডিট করতে পারবেন।

Remove.bg

বিভিন্ন সময়ে আমাদের বিভিন্ন রকমের ডকুমেন্ট থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে হয়। অর্থাৎ আপনার কাছে যে ছবি রয়েছে, সেই ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে নিতে হয়।

আপনার যদি কোন ইম্পোর্টেন্ট ডকুমেন্ট থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে নেয়ার প্রয়োজন পড়ে, তাহলে উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সেটি খুব সহজেই করে নিতে পারবেন।

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে একটি ক্লিক করার মাধ্যমে যেকোনো ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করতে পারবেন এবং সেটি এইচডি কোয়ালিটি তে ডাউনলোড করতে পারবেন।

এছাড়াও বলাবাহুল্য, এই ওয়েবপেজটি আপনি একদম ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন এবং এর মাধ্যমে খুব সহজে যেকোনো ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করে সেটি আপনার নিজের কাছে নিয়ে আসতে পারবেন।

খুব সহজে ব্যবহার করার মত যে সমস্ত ছবি এডিটিং ওয়েবসাইট রয়েছে, সেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য একটি ওয়েব সাইট হল উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটটি।

Canva

একসাথে কয়েক লক্ষ ফ্রী রিসোর্স এর সহায়তায় আপনি যদি যেকোনো একটি ছবি ইডিট করে নিতে চান তাহলে যে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম সবার আগে থাকবে সেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য একটি হলো ক্যানভা।

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি চাইলে ফ্রিতে কয়েক লক্ষ রিসোর্স এর মাধ্যমে যে কোন ছবি ভিডিও ইত্যাদি খুব সহজেই এডিট করে নিতে পারবেন।

এছাড়াও এখানে থাকা অনেকগুলো রিসোর্স একদম ফ্রিতে ব্যবহার করার সুবিধা থাকার কারণে এই প্লাটফরমটি ব্যবহারকারীর কাছে খুবই জনপ্রিয়।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট এর লিস্ট

আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে সমস্ত প্রিমিয়াম ফিচারস সহায়তায় যেকোনো একটি ছবি এডিট করে নিতে চান, অর্থাৎ অনলাইন ছবি এডিটিং টুলস এর সন্ধান করে থাকেন তাহলে ক্যানভা টুলস ব্যবহার করতে পারেন।

এই টুলটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি পূর্বে থেকে তৈরি করা টেমপ্লেট পাবেন, যেগুলোর মাধ্যমে আপনি আপনার ছবিকে আরও বেশি আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবেন।

সেজন্য আপনি যদি আপনার ইউজার এক্সপেরিয়েন্স বৃদ্ধি করতে চান এবং খুবই সুন্দর ভাবে ছবি ইডিট করতে চান, তাহলে ক্যানভা টুলস ব্যবহার করতে পারেন।

ছবি এডিট করার জন্য কোনটা ভাল? ওয়েব নাকি অ্যাপ?

আপনি যদি যেকোনো একটি ছবি ইডিট করতে চান তাহলে সেই ছবি এডিট করার জন্য আপনার সামনে দুইটি অপশন খোলা থাকে। এর মধ্যে থেকে একটি হলে ওয়েব এবং অন্যটি হলো মোবাইল অ্যাপ।

আপনি চাইলে এই দুইটি উপায়ে খুব সহজে ছবি এডিট করতে পারেন। তবে সবচেয়ে ভালো ইউজার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়ার জন্য কোনটি ব্যবহার করবেন? মোবাইল এপ নাকি ওয়েব ব্রাউজার?

ভালো ইউজার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়ার জন্য আপনি যদি ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করার চিন্তা করতে পারেন তাহলে আপনাকে যেকোনো একটি স্মার্ট ডিভাইসে ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করার মাধ্যমে ছবি এডিট করার চিন্তা-ভাবনা করতে হবে।

এজন্য আপনি চাইলে পিসি ব্যবহার করতে পারেন। পিসি ব্যাবহার করার মাধ্যমে যেকোনো একটি ওয়েব ব্রাউজারে খুব সহজে ফটো এডিটিং টুলসের অনলাইন ভিউ ব্যবহার করা সম্ভব হয়।

তবে মোবাইল ডিভাইস ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি যদি ওয়েব ব্রাউজারে ছবি এডিটিং করার ইচ্ছা পোষণ করেন তাহলে বিভিন্ন রকমের বাগস কিংবা স্লো হয়ে যাওয়া রিলেটেড সমস্যার মধ্যে পড়তে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনি যদি মোবাইল ডিভাইসের মাধ্যমে ছবি ইডিট করতে চান তাহলে যে সমস্ত মোবাইল এপ ব্যবহার করার মাধ্যমে ছবি এডিট করা হয়, সে সমস্ত এপ ব্যবহার করতে পারেন।

মোবাইলের এপ ব্যবহার করার মাধ্যমে ছবি এডিট করলে সেটি আপনাকে সবচেয়ে ভালো ইউজার এক্সপেরিয়েন্স দিবে এবং কোন রকমের স্লো হয়ে যাওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তি দিবে।

এজন্য সর্বশেষ কথা একটি আর সেটি হল, আপনার যদি পিসি থাকে তাহলে ওয়েব ব্রাউজার এ ছবি এডিট করাকে বেচে নিতে  পারেন।

এবং  পিসি যদি না থাকে তাহলে মোবাইলে ছবি এডিটিং এপ ব্যবহার করার মাধ্যমে মোবাইলে ছবি এডিট করে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতে পারেন।

ছবি এডিট করার ওয়েবসাইট সম্পর্কে উপরে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো এবং একইসাথে ছবি এডিটিং রিলেটেড আরো কিছু তথ্য তুলে ধরা হলো।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Share via
Copy link