(১৫+) অনলাইন জব করার আইডিয়া সংগ্রহ করুন

আপনার মধ্যে যদি ক্রিয়েটিভিটি থেকে থাকে, তাহলে আপনি এই প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে অনলাইন জব কিংবা অফলাইন জবে অংশগ্রহণ করতে পারেন।

আজকের এই আর্টিকেলের বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হবে, এরকম কিছু অসাধারণ জব সম্পর্কে যেগুলো শিখে ফেললে আপনি অনলাইনে এবং অফলাইনে দুটো জায়গায় করতে পারবেন।

অনলাইন জব করার মতো সেরা কাজ

যে সমস্ত কাজগুলোকে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয়া হয় এবং যে সমস্ত কাজে যে কোন সেক্টরে একটি চাকরি আদায় করে নেওয়া সম্ভব, সেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি নিচে মেনশন করা হবে।

১। সোসিয়াল মিডিয়া ম্যানেজার

১। ইমেইল মার্কেটার

৩।গ্রাফিক্স ডিজাইনার

৪। অনলাইন ব্লগিং জব।

৫। ফটোগ্রাফি।

৬। অনলাইনে পডকাস্ট বানানোর জব।

৭। অনলাইন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট জব।

৮। অডিও ট্রান্সক্রাইবিং জব।

৯। অনলাইন এসইও এক্সপার্ট।

১০। ওয়েব ডেভেলপমেন্ট/ডিজাইনিং জব।

১১। কনটেন্ট রাইটিং অনলাইন জব

১২। অনলাইন সার্ভে জব।

১৩। অনলাইন টিউটর জব।

উপরে যে সমস্ত কাজের কথা মেনশন করা হয়েছে, সেগুলো বর্তমান সময়ে অনলাইনে কাজ করার মতই অসাধারন কিছু কাজ।

এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক, উপরে উল্লেখিত কাজগুলো কিভাবে করতে হয় এবং কাজগুলো শিখে নিলে কোথায় আপনি এই কাজ গুলো পেতে পারেন?

সোসিয়াল মিডিয়া ম্যানেজার

আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়াতে একজন এক্সপার্ট হয়ে থাকেন, তাহলে যে কোন কোম্পানির সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতে পারেন।

এক্ষেত্রে, জনপ্রিয় যে সমস্ত সোসিয়াল প্ল্যাটফর্ম রয়েছে, সেসমস্ত প্লাটফর্ম গুলো মেইনটেইন করার মত যোগ্যতা অর্জন করতে হয়।

এবং সে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে থেকে কোনো একটিতে কিংবা ক্লায়েন্টের পছন্দ অনুযায়ী কয়েকটিতে তাদের ব্যান্ড সিগনাল তৈরি করে দেয়ার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন।

এই জবটি হল একটি ডিমান্ডেবল জব।

ইমেইল মার্কেটার

আপনি যদি ভাল করে ইমেইল লিখতে পারেন, তাহলে এই ইমেইল লেখার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

অর্থাৎ একজন ইমেইল মার্কেটার হিসেবে কাজ করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইনার

অনলাইন থেকে আয় করার অন্যতম একটি উপায় হলো গ্রাফিক্স ডিজাইন করা। এছাড়াও অনলাইনে গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে প্রচুর জব রয়েছে।

সেজন্য, আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন এ এক্সপার্ট হয়ে থাকেন এবং আপনি যদি এটা মনে করেন যে গ্রাফিক ডিজাইন কলেজ জব করার মতো উপযোগী, তাহলে সেটি আপনার জব করার অন্যতম হাতিয়ার হতে পারে।

অনলাইনে ব্লগিং জব

অনলাইনে জব করার মত যে সমস্ত উপায় রয়েছে, সেগুলোর মধ্যে থেকে কার্যকরী একটি উপায় হলো ব্লগিং।

ব্লগিং কে আপনি চাইলে ফুলটাইম জব হিসাবে কাজে লাগাতে পারেন কিংবা আপনি চাইলে এটিকে পার্ট টাইম জব হিসাবে কাজে লাগাতে পারেন।

এছাড়াও এই কাজটি আপনি চাইলে নিজে নিজে করতে পারেন কিংবা অন্য যে কোনো রকমের ব্লগিং কোম্পানিতেও করতে পারেন।

ব্লগিং কোম্পানিতে কাজ করা বলতে এটা বোঝানো হয়েছে আপনি চাইলে বিভিন্ন রকমের কোম্পানিতে, কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত হতে পারেন, ডিজাইনার হিসাবে করতে পারেন বা এই রিলেটেড আরো অনেক বিষয় আছে, যা করতে পারেন।

তবে, আপনি এখান থেকে বেশি বেনিফিট অর্জন করতে চাইলে নিজে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারেন এবং তারপরে সেখানে কাজ করার মাধ্যমে পার্টটাইম কিংবা ফুলটাইম জব হিসেবে, সেখান থেকে টাকা অর্জন করতে পারেন।

অনলাইন সার্ভে জব

অনলাইনে সার্ভে করার মত অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে, যে সমস্ত ওয়েবসাইটে সার্ভে করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

সার্ভে বলতে বুঝায়, বিভিন্ন রকমের প্রশ্নের উত্তর। আপনি যদি এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর সঠিকভাবে দিতে সক্ষম হন তাহলে, আপনার গুরুত্বপূর্ণ সময় অপচয় করার কারণে সেখান থেকে আপনি টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

সার্ভে করে টাকা আয় করার মত যে সমস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে, সে সমস্ত ওয়েব সাইটগুলোর লিংক নিচে তুলে ধরা হলো।

উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে থেকে যেকোন একটিতে কিংবা আপনার পছন্দ অনুযায়ী সবগুলো ওয়েবসাইটে সার্ভে করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

অনলাইন টিউটর জব

এছাড়াও অনলাইনে জব করার মত আরেকটি উপায় হলো অনলাইনে টিউটর হিসাবে কাজে নিযুক্ত হন।

আপনি যদি যে কোনো একটি বিষয়ে পর্যাপ্ত পরিমাণ জ্ঞান রাখেন, সেটা হোক এডুকেশনাল কোন একটি বিষয় কিংবা টেকনিক্যাল কোনো একটি বিষয়ে, তাহলে আপনি চাইলে বিভিন্ন কোম্পানিতে টিউটর হিসেবে যোগ দিতে পারেন।

এতে করে আপনি নিজের স্কিল কে আরো বেশি ঝালিয়ে নিতে পারবেন এবং অন্যকে শেখানোর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

যেহেতু, যে কাউকে শেখানোর পূর্বে আপনার নিজস্ব জ্ঞান থাকা জরুরী। সেজন্য, এই চাকরি করার জন্য আপনাকে পূর্বে থেকে সতর্ক অবস্থানে থাকতে হবে।

সতর্ক অবস্থানে থাকতে হবে বলতে এটা বুঝানো হয়েছে যে, আপনাকে পূর্বে থেকে এরকম জ্ঞান অর্জন করতে হবে যাতে করে চারপাশ থেকে প্রশ্ন আসলেও আপনি সেটির জবাব দিতে পারেন।

কনটেন্ট রাইটিং অনলাইন জব

এছাড়াও, আপনি যদি ভালো রকমের সৃজনশীল প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে পারেন, বা ভালো ব্লগ লিখতে পারেন, তাহলে কনটেন্ট রাইটিং করার মাধ্যমে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

এছাড়াও ইন্টারনেটে এরকম অনেক জব রয়েছে, যেগুলো কনটেন্ট রাইটিং জব হিসাবে পরিচিত। আপনি চাইলে সার্চ করার মাধ্যমে বিভিন্ন ব্লগে এই রিলেটেড যোগ করতে পারেন।

অথবা আপনি চাইলে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মে এই রিলেটেড কাজ গুলো সংগ্রহ করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম গুলোর মধ্যে থেকে যে সমস্ত প্লাটফর্মে আপনি এই রিলেটেড সবগুলো নির্বিঘ্নে করতে পারবেন, সে সমস্ত প্লাটফর্ম গুলোর একটি লিস্ট নিচে তুলে ধরা হলো।

এছাড়াও যে সংস্থা প্ল্যাটফর্ম থেকে আপনি, ব্লগ লেখার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন সে সমস্ত প্ল্যাটফর্মের লিস্ট নিচে তুলে ধরা হলো।

Trickbd.com

উপরে উল্লেখিত দুইটি উপায় মাধ্যমে যে কেউ চাইলে কন্টেন্ট রাইটিং এর মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

ফটোগ্রাফি

আপনি যদি ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন, এবং ফটোগ্রাফি করতে পছন্দ করেন, তাহলে অনলাইন থেকে টাকা আয় করার একটি অন্যতম হাতিয়ার হতে পারে ফটোগ্রাফি করা।

ইন্টারনেটের জগতে এরকম অনেক প্লাটফর্ম রয়েছে যে সমস্ত প্লাটফর্মে আপনার নিজের ছবি বিক্রি করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন।

আপনার তোলা ছবি গুলো যদি অসাধারণ হয়ে থাকে, তাহলে সে সমস্ত ছবির বিনিময়ে আপনি টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

যে সমস্ত প্লাটফর্মে ছবি বিক্রি করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন, সে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি লিংক নিচে তুলে ধরা হলো।

উপরে উল্লেখিত প্ল্যাটফর্মগুলোতে রেজিস্ট্রেশন করার মাধ্যমে আপনার দুর্দান্ত ছবিগুলো বিক্রি করতে পারবেন। এবং ফটোগ্রাফি করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

অনলাইনে পডকাস্ট বানানোর জব

এছাড়াও আপনি যদি একজন পডকাস্ট স্পেশালিস্ট হয়ে থাকেন, তাহলে অনলাইনে পডকাস্ট বানানোর জব করে টাকা আয় করতে পারেন।

এটি একটি অভিনব এবং ক্রিয়েটিভ উপায়। যার মাধ্যমে আপনি অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারেন।

অনলাইন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট জব

অনলাইনে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে খানিকটা জ্ঞানসমৃদ্ধ হতে হবে।

এবং আপনার মধ্যে যদি এরকম মনোবল থেকে থাকে যে আপনি অনলাইনে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে উপযোগী, তাহলে এই জবটি আপনার জন্য একটি দুর্দান্ত সুযোগ, যার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

অডিও ট্রান্সক্রাইবিং জব

এখানে অনেকেই হয়তো ট্রান্সক্রাইব শব্দটির সাথে পরিচিত নাও হতে পারেন। এর অর্থ হলো স্ক্রিপ্ট লেখা।

অর্থাৎ আপনি চাইলে ইউটিউব ভিডিও কিংবা অন্য যে কোন প্ল্যাটফর্ম এর ভিডিওগুলো ট্রানস্ক্রিবিং করার মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

তবে, অনেক ক্ষেত্রে ভিডিওগুলো থেকে স্ক্রিপ্ট লেখার চাইতে, ভিডিও তৈরি করার আগে লেখা স্ক্রিপ্ট বেশি প্রাধান্য পায়। অর্থাৎ আপনার কাছ থেকে যে সমস্ত ব্যক্তিবর্গ এটা ক্রয় করবেন তারা একটি স্ক্রিপ্ট বলবে এবং সেটি আপনি লিখবেন।

অনলাইন এসইও এক্সপার্ট

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন সম্পর্কে আপনার ধারণা থেকে থাকে, তাহলে যেকোনো প্লাটফর্মে একজন অনলাইন এসইও এক্সপার্ট হিসেবে আপনি কাজ করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনি চাইলে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করে টাকা আয় করতে পারবেন কিংবা যেকোন টপ লেভেল কোম্পানি বা মিডল লেভেল কোম্পানিতে, চাকরি করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে অনলাইনে এসইও এক্সপার্ট হিসেবে জব করার পূর্বে আপনার এসইও সম্পর্কে বেশ কিছু জ্ঞান থাকা জরুরি।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট/ডিজাইনিং জব

ইন্টারনেটের যদি আপনি অনলাইন জব লিখে সার্চ করেন, এবং তারপরে এর পাশে যদি ওয়েব ডেভলপমেন্ট এর যেকোনো একটি সেক্টর লিখে সার্চ করে দেন, তাহলে সেই রিলেটেড জব সবচেয়ে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায়।

আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখে ফেলেন এবং আপনার কাছে যদি একটি সার্টিফিকেট থাকে, এছাড়াও কয়েকটি অসাধারণ প্রজেক্ট থেকে থাকে তাহলে আপনার অনলাইন জব এর প্রথম হাতিয়ার হল ওয়েব ডেভেলপমেন্ট।

কারণ, ইন্টারনেটের জগতে প্রতিদিনই কেউ-না-কেউ পদার্পণ করেছে। আর এক্ষেত্রে তাদের নতুন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার প্রয়োজন পড়ছে।

এছাড়াও, আপনি যদি অনলাইনে আপনার ব্যবসাকে ল্যান্ড করাতে চান , তাহলে অনলাইনে রিলেটেড একটি ব্র্যান্ড তৈরি করে নিতে হবে। যা ওয়েব ডেভলপাররা করে দেয়।

সেজন্য আপনার যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর যেকোনো একটি ল্যাঙ্গুয়েজ সম্পর্কে ভালো পরিমাণে জ্ঞান থেকে থাকে। যেমনঃ রিয়েক্ট, জাভাস্ক্রিপ্ট ইত্যাদি। তাহলে সেটিকে কাজে লাগিয়ে আপনি টাকা আয় করতে পারেন।

যদি বিশ্বাস না হয় তাহলে যে কোনো একটি, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ল্যাঙ্গুয়েজ লিখে তারপরে তার পাশের জব লিখে সার্চ করে দেখুন।

(১৫+) অনলাইন জব করার আইডিয়া সংগ্রহ করুন

কতটা সার্চ রেজাল্ট নজরে আসছে দেখছেন?

অর্থাৎ, আপনি যদি ইন্টারনেটে অনেক বেশি ডিমান্ডেবল জব করতে চান, তাহলে web-development সম্পর্কে ধারণা অর্জন করুন এবং সেটি শিখে নিতে পারেন।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর সাথে ওয়েব ডিজাইন শিখে নিলে সেটি আরও বেশি বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Share via
Copy link