ব্লগিং থেকে কত টাকা আয় করা যায়? (জেনে নিন)

আমাদের মধ্যে যে বা যারা ব্লগিং সম্পর্কে শুনেছেন, কিংবা ব্লগিংয়ে আসতে চান, তারা নিশ্চয়ই ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায় সেই সম্পর্কে জেনে নিতে চান?

অর্থাৎ ব্লগিংয়ে আসার পূর্বে আপনার এই সম্পর্কে জেনে নেয়ার প্রয়োজন আছে যে আপনি যদি ব্লগিং করেন, তাহলে ব্লগিং থেকে আয় করতে পারবেন কিনা?

এছাড়াও ব্লগিং থেকে যদি টাকা আয় করতে পারেন তাহলে আপনি কত টাকা আয় করতে পারবেন, সেই সম্পর্কেও একটি সম্যক ধারণা থাকার প্রয়োজন রয়েছে।

ব্লগিং থেকে কি টাকা আয় করা যায় কিংবা আয় করা গেলে কত টাকা আয় করা যায়? সে সম্পর্কে এই আর্টিকেল এর মধ্যে আলোচনা করা হবে।

ব্লগিং আসলে কি?

একেবারে সহজ ভাষায় বলতে গেলে আপনার যদি কোন একটি নির্দিষ্ট টপিকের উপর খুব বেশি পরিমাণে জ্ঞান থাকে এবং মানুষকে শেখানোর মতো অভিজ্ঞতা থাকে, তাহলে আপনি এটি অন্যের মাঝে বিলিয়ে দিতে পারেন।

এই বিলিয়ে দেয়া আপনি যদি অনলাইন ছাড়া অফলাইনে লেখালেখির মাধ্যমে সম্পন্ন করতে চান, তাহলে আপনি চাইলে বই লিখতে পারেন এবং আপনার বই মানুষ পড়তে পারে।

এক্ষেত্রে আপনি যদি একটি সফল বই লিখতে পারেন, তাহলে এই বই যখন পাবলিশ করবেন তখন কেউ এটি কিনে নিলে আপনি এখান থেকে কমিশন পাবেন।

ঠিক একই রকমভাবে আপনি যদি এই লেখালেখি অনলাইনের মাধ্যমে করতে চান, তাহলে আপনি চাইলে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন এবং লেখালেখি মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারেন।

ছোট একটি ব্লগ কিংবা ওয়েবসাইট তৈরি করার মাধ্যমে আপনি যদি আপনার জ্ঞান অন্যদের মাঝে প্রকাশ করার ইচ্ছা পোষণ করেন, তাহলে সেটি হবে ব্লগিং

এছাড়াও ব্লগিং এর আরো অনেক আকর্ষণীয় সংজ্ঞা রয়েছে, তবে একদম সহজ ভাবে আপনি যদি বুঝে নিতে চান, তাহলে উপরের সংজ্ঞাটি পড়লেই আপনি এই সম্পর্কে বুঝতে পারেন।

ব্লগিং থেকে কি আয় করা যায়?

আপনি যেভাবে বই লেখার মাধ্যমে আপনার পরিশ্রম সার্থক করতে পারেন; ঠিক একই রকমভাবে আপনি যদি ব্লগ লিখেন, তাহলে আপনি আপনার পরিশ্রম সার্থক করতে পারবেন।

অর্থাৎ এক কথায় বলতে গেলে, আপনি অবশ্যই ব্লগিং করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন।

তবে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে অবশ্যই কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে এবং সেই বিষয় গুলোর মধ্যে থেকে কয়েকটি নিচে মেনশন করা হলো।

এক্ষেত্রে আপনার লেখালেখির মাধ্যমে অর্থাৎ ব্লগিং করার মাধ্যমে আপনি যদি টাকা আয় করতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই ইউনিক কন্টেন্ট পাবলিশ করতে হবে।

যে সমস্ত কনটেন্ট আপনি পাবলিশ করবেন সেই সমস্ত কনটেন্ট অবশ্যই তথ্যবহুল হতে হবে এবং এরকম কনটেন্ট পাবলিশ করতে হবে, যা পড়ে কেউ কিছু শিখতে পারে।

এছাড়াও আরও অনেক হাবিজাবি বিষয় রয়েছে, যে সমস্ত বিষয় সম্পন্ন করার মাধ্যমে আপনি ব্লগিং করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে ব্লগিং থেকে টাকা আয় করার প্রধান এবং অন্যতম একটি শর্ত হলো, আপনাকে অবশ্যই ইউনিক আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে। যাতে করে আর্টিকেল থেকে কেউ কিছু শিখতে পারে।

আর যখনই আপনি কন্টিনিউয়াসলি ভালো ভালো আর্টিকেল পাবলিশ করবেন, তখন আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসা শুরু হবে এবং এই ভিজিটর থেকে আপনি বিভিন্ন উপায়ে আয় করতে পারবেন।

ব্লগিং থেকে কত টাকা আয় করা যায়?

এবার এই আর্টিকেলের যে মূল প্রতিপাদ্য বিষয় যে রয়েছে, সেই মূল প্রতিপাদ্য বিষয় সম্পর্কে কিছু আলোচনা করা যাক।

অর্থাৎ আপনি যদি ব্লগিং থেকে টাকা আয় করতে চান, তাহলে আপনি কত টাকা আয় করতে পারবেন এবং আপনার আয় করার লিমিটেশন কি পরিবর্তন হতে পারে?

এখানে একটি বিষয় অবশ্যই উল্লেখ করা দরকার সেটি হল, ব্লগিং থেকে সবাই একই পরিমানে টাকা কখনোই আয় করতে পারবে না।

অর্থাৎ আপনি যদি ব্লগিং করেন, তাহলে আপনি ব্লগিং থেকে একচুয়ালি কত টাকা আয় করতে পারবেন, সেই টাকার এমাউন্ট এভাবে বর্ণনা করা প্রায় অসম্ভব।

তবে আপনি যদি বেশি পরিমাণে পরিশ্রম করেন এবং ভালো ইউনিক কন্টেন্ট পাবলিশ করতে সক্ষম হন, তাহলে আপনি ব্লগিং করার মাধ্যমে বেশ কিছু টাকা আয় করতে পারবেন।

এই টাকার এমাউন্ট, আপনার পরিশ্রম এবং অন্যান্য বিষয়ের উপর নির্ভর করবে।

তবে একেবারে সহজ ভাবে যদি বলা হয় তাহলে এটা বলতে হবে, আপনি ব্লগিং করলে যদি আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর প্রতিদিন কমপক্ষে দুই হাজার আনতে পারেন।

তাহলে আপনি মাসে সে কম করে হলেও ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। অবশ্যই আপনার ওয়েবসাইটের আর্টিকেল ইউনিক হতে হবে এবং ভালো কোয়ালিটির হতে হবে।

মূলত আপনি যদি মাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা আয় করতে চান, তাহলে অন্যান্য যে সমস্ত প্রসেস রয়েছে, সেগুলোর মধ্যে থেকে গুগল এডসেন্স বেছে নিতে হবে।

অর্থাৎ ভালো ইউনিক আর্টিকেল পাবলিশ করার মাধ্যমে আপনি যদি আপনার ওয়েবসাইটে গুগল অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভাল নিয়ে নিতে পারেন, তাহলে এই এডসেন্সের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

আপনার ওয়েবসাইটে কত বেশি পরিমাণে টাকা করতে পারবেন সেটি নির্ভর করবে, আপনার ওয়েবসাইটের কোয়ালিটি কনটেন্ট এবং ভিজিটরের উপর।

অর্থাৎ আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর যত বেশি থাকবে আপনার আয় করার পরিমাণ ঠিক তত বেশি থাকবে।

শুধুমাত্র আপনি যে গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারবেন এরকম তা কিন্তু নয়, আপনি যদি কোয়ালিটি ট্রাফিক আনতে পারেন, তাহলে গুগল এডসেন্স এর বিকল্প উপায়ে আরো আয় করতে পারবেন।

অর্থাৎ আপনি চাইলে এফিলিয়েট মার্কেটিং করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন কিংবা আরো অনেক রকমের  মার্কেটিং রয়েছে সে সমস্ত মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আপনি আয় করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর এবং কোয়ালিটি কনটেন্ট যত বেশি বৃদ্ধি পাবে, আপনার ওয়েবসাইট থেকে আয় করার পরিমাণ ঠিক তত বেশি বৃদ্ধি পাবে।

ব্লগিং থেকে আয় করার কিছু সিক্রেট

আপনি যদি ব্লগিং থেকে বেশি পরিমাণে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনাকে কিছু সিক্রেট পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

ব্লগিং থেকে কত টাকা আয় করা যায়? (জেনে নিন)

আর এই সমস্ত পদ্ধতিগুলোর মধ্যে থেকে সবচেয়ে কার্যকরী কয়েকটি পদ্ধতি নিচে উল্লেখ করা হলোঃ

  • আপনাকে অবশ্যই ব্লগিং এ রেগুলার হতে হবে।
  • প্রতিদিন কম করে হলেও একটি আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে।
  • আর্টিকেল পাবলিশ করার পূর্বে অবশ্যই কিওয়ার্ড রিসার্চ করে নিবেন।
  • কিওয়ার্ড রিসার্চ করার ক্ষেত্রে যে সমস্ত কিওয়ার্ড সিপিসি (Cost Per Click) ভ্যালু কিছুটা বেশি সে সমস্ত কিওয়ার্ড নিয়ে লিখবেন।
  • কারণ আপনারা আর্টিকেলের সিপিসি যদি বেশি হয়, তাহলে আপনি অ্যাডসেন্স থেকে প্রতি ক্লিকের জন্য বেশি পরিমাণে টাকা আয় করতে পারবেন।
  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর দিকে অবশ্যই লক্ষ্য রাখবেন।
  • কনটেন্ট তৈরি করবেন ভিজিটরের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য আয় করার জন্য নয়।
  • আপনাকে এরকম কনটেন্ট তৈরি করতে হবে, যে সমস্ত কনটেন্ট পড়ার পরে যে কেউ বুঝতে পারে যে পরবর্তীতে তার কিরকম স্টেপ ফলো করতে হবে।
  • যে টপিক নিয়ে লেখার চেষ্টা করবেন সেই টপিক দিয়ে একটি আর্টিকেল এর মধ্যে সমস্ত বিষয় কভার করার চেষ্টা করবেন।

উপরে মেনশন কিছু কিছু স্টেপ ফলো করা ছাড়াও আপনি আরও বিভিন্ন উপায়ে ফলো করতে পারেন ব্লগিং ক্যারিয়ার স্বার্থক করার জন্য।

ব্লগিং থেকে কত টাকা আয় করা যায়? বা আপনি কত পরিমাণ টাকা আয় করতে পারবেন সেটি ইম্প্রুভ করতে হলে আপনাকে অবশ্যই কোয়ালিটিফুল থাকতে হবে।

ব্লগিং থেকে কত টাকা আয় করা যায় সেই সম্পর্কে আশা করি, আপনি বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পেরেছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven − seven =

close
Scroll to Top
Share via
Copy link