ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজ | ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোডার |

ফেসবুক ভিডিও দেখছেন কখনও? যে কোনো রকমের এন্টারটেইনমেন্ট ভিডিও দেখার জন্য আপনি কোন প্লাটফর্ম সবচেয়ে প্রথমে বেছে নেন? হয়তো ইউটিউব তাইতো?

আসলেই ব্যাপারটা তাই; যে কোনো রকমের ভিডিও দেখার জন্য আমরা সর্বপ্রথম যে প্ল্যাটফর্মের দিকে সবচেয়ে বেশি নজর আরোপ করি; সেটি হল ইউটিউব।

নিঃসন্দেহে ইউটিউবে প্রতি মিনিটে কয়েক লক্ষাধিক ভিডিও আপলোড হয় এবং এখানে প্রতি মিনিটে কয়েক মিলিয়ন ভিউজ হয়; এই সমস্ত মিলিয়ন ভিউজ এর মধ্যে থেকে আপনি একজন হলে তাতে দোষ কিসের?

তবে ইদানিং আপনি যদি লক্ষ্য করেন তাহলে দেখতে পারবেন; ফেসবুকের মাধ্যমে যেকোন ভিডিও খুব সহজে ভাইরাল করা সম্ভব হচ্ছে; অনেকে আবার যাদের ইউটিউব চ্যানেল আছে তারাও তাদের ভিডিওগুলো কে পুনরায় ফেসবুকে আপলোড দিয়ে থাকেন।

ভিডিও দেখার জন্য ফেসবুক নামের প্ল্যাটফর্মটির জনপ্রিয়তা দিন দিন বহুলাংশে বেড়ে যাচ্ছে; কারণ একটাই আপনি ইউটিউব এর মতো এখানেও ইউনিক ভিডিও এর লিস্ট খুব সহজেই খুঁজে পেতে পারেন।

 

ফেসবুক ভিডিও থেকে আয়

 

আপনি যদি ইউটিউবে ইউনিক ভিডিও আপলোড দিয়ে থাকেন তাহলে আপনি ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশন করার মাধ্যমে আপনার এই ভিডিও গুলোর একটি মূল্য আপনি পেয়ে যান।

তবে ফেসবুক ভিডিও থেকে আয় করা কি আদৌ সম্ভব? আপনি কি ভিডিও থেকে আয় করতে পারবেন?  ভিডিও থেকে আয় করার পন্থা আমি নিচে আলোচনা করছি।

ভিডিও থেকে আয় করার যে মনিটাইজেশন পদ্ধতি রয়েছে সেটি হল ”
অ্যাড ব্রেকস” যেটি মূলত আপনার ভিডিও এর মধ্যবর্তী যে কোন অংশে ওপেন হয়ে যাবে।

অ্যাড ব্রেকস দিয়ে মনিটাইজেশন এর নিয়ম:

আপনি যদি আপনার ফেসবুক পেইজে যে সমস্ত ভিডিও আপলোড করেন ঐ সমস্ত ভিডিও গুলোর মধ্যে কোন রকমের অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখাতে চান তাহলে আপনাকে সে জন্য অ্যাড ব্রেকস এর ফায়দা নিতে হবে।

অ্যাড ব্রেকস এ রিকোয়ারমেন্ট

  • বিজনেস পেজ খুলতে হবে।
  • লাইক কিংবা ফলোয়ার 10 হাজারের উপরে হতে হবে।
  • সবশেষ ৬০ দিনে; এক মিনিট দৈর্ঘের ৩০ হাজার ভিউ এবং ভিডিও এর দৈর্ঘ্য কমপক্ষে ৩ মিনিট হতে হবে।

উপরোক্ত রিকোয়ারমেন্ট গুলো যদি আপনার ফেসবুক পেইজ এর ক্ষেত্রে আপনি লক্ষ্য করেন; তাহলে আপনি নিশ্চয়ই ফেসবুক এর বিজ্ঞাপন আপনার ভিডিওতে যুক্ত করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনি ফেসবুক থেকে ভিডিও আপলোড করে আয় করতে পারবেন কিনা সেই সম্পর্কিত তথ্যগুলো জানতে নিচের দেয়া লিঙ্ক এ গিয়ে দেখতে পারেন।

join-ad-breaks

উপরুক্ত লিঙ্ক এ আপনি যখন ডিজিট করবেন; তখন আপনি আপনার পেইজ থেকে মনিটাইজেশন করতে পারবেন কিনা সেই সম্পর্কে পুরোপুরি অ্যালার্ট পেয়ে যাবেন।

এবং সবকিছু ঠিক থাকলে আপনি যখন আপনার বিজনেস পেইজটিকে মনিটাইজেশন এর জন্য আবেদন করবেন; তখন, কয়েক ঘন্টার মধ্যে ফেইসবুক সেই সম্পর্কে বিস্তারিত আপডেট আপনাকে জানিয়ে দিবে।

এবং আপনি যদি ভিডিও তৈরী করে আয় করার মত যোগ্যতা রাখেন তাহলে ফেসবুকের নেক্সট আপডেটের মাধ্যমে আপনি এই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে আয় করা শুরু করে দিতে পারবেন।

 

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজ

 

ফেসবুক ভিডিও মনিটাইজেশনের জন্য মূলত আপনি আমার দেয়া উপরে উল্লেখিত প্রসেস follow করতে পারেন; এক্ষেত্রে ফেসবুকে রিকোয়ারমেন্ট আপনার সাথে মিলে গেলেই আপনি মনিটাইজেশন নিতে পারবেন।

ভিডিও মনিটাইজ করার পর আপনি এখান থেকে কত ডলার আয় করেছেন; সেই সম্পর্কে পুরোপুরি আপনি আপনার ফেসবুক বিজনেস পেজ এর উপর পেয়ে যাবেন।

এক্ষেত্রে মনিটাইজ করার পরে আপনি যদি আপনার প্রতিদিনের আয়কৃত ডলারের পরিমাণ সম্পর্কে বিস্তারিত দেখতে চান তাহলে আপনাকে নিচের লিংকে ভিজিট করতে হবে।

business.facebook.com

মনিটাইজেশন পাওয়ার পরে আপনি চাইলে উপরুক্ত লিংক থেকে আপনার বুকমার্কে সেভ করে রেখে দিতে পারেন; যাতে করে আয় এর পরিমাণ দেখতে আপনার পরবর্তী সময়ে কোন অসুবিধা না হয়।

 

ফেসবুক ভিডিও কপিরাইট

 

কপিরাইট বলতে আমরা মূলত যেটা সবচেয়ে বেশি বুঝি সেটা হলো: আমাদের দেয়া কোন একটি ভিডিও যদি কেউ পুনরায় আবার একই ভাবে প্রকাশ করে তাহলে সেটিকে কপিরাইট বলে।

ঠিক একই রকমভাবে ফেইসবুকে ভিডিও কপিরাইট খুব বেশি লক্ষ্য করা যায়; অনেকেই ফেসবুক পেজ থেকে ভিডিও চুরি করে নিয়ে তাদের পেইজ এর মধ্যে প্রকাশ করে দেয়।

এটিকে মূলত ফেইসবুক পেইজ কপিরাইট বলা হয়; আপনি যদি ভিডিও কপিরাইট এর আশঙ্কা দেখতে পারেন তাহলে এটি আপনি ফেসবুকে জানিয়ে দেয়ার মাধ্যমে রিমুভ করে দিতে পারেন।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনি যে ভিডিও কপিরাইট এর আওতাধীন আনবেন; সেটি প্রকাশের তারিখ এবং অন্যান্য বিষয় গুলোকে যে আপনারই; সেটা ফেসবুকে প্রমাণ করতে হবে।

ফেসবুকে কপিরাইট ইস্যু নিয়ে একটি সফল রিপোর্ট করার জন্য আপনি চাইলে নিচের দেয়া পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখে আসতে পারেন।

রিমুভ করুন ফেসবুক টাইমলাইন থেকে চুরি করা করা ছবি, স্ট্যাটাস |

আপনি যখনই উপরুক্ত আর্টিকেল বুঝেশুনে পড়ে আসবেন; তখন আপনি খুব সহজেই আপনার যেকোন বিষয়ের কপিরাইট যখন আপনি লক্ষ্য করবেন তখন সেটি রিমুভ করে দিতে পারবেন।

 

ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করার উপায়

 

আপনার যদি কোন একটি ফেসবুক ভিডিও পছন্দ হয়; তাহলে আপনি নিশ্চয়ই তখন ভিডিও ডাউনলোড করার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইবেন।

ভিডিও ডাউনলোড করার উপায় অনেকগুলো রয়েছে যেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো আপনি চাইলে কয়েকটি সাইট ব্যবহার করার মাধ্যমে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারেন; আবার ভিডিও ডাউনলোডার সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ডাউনলোড করতে পারেন।

ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করার উপায় সম্পর্কে আপনি যদি বিস্তারিত জানতে চান তাহলে নিশ্চয়ই এই পোস্টটি কন্টিনিউ করতে থাকবেন।

ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোডার

 

ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ভিডিও ডাউনলোডার যে সমস্ত টুলস কিংবা অ্যাপস রয়েছে সেগুলো সহায়তা নিতে হবে।

আর ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোডার হিসেবে যে সমস্ত বিষয় গুলোকে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয়া হয় সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো:

  • ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড অ্যাপস

  • ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড সফটওয়্যার

আপনি চাইলে ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড অ্যাপস এবং ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই আপনার পছন্দের যেকোন পাবলিক ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনার পছন্দের ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য অবশ্যই সেই ভিডিওর প্রাইভেসি যাতে পাবলিক করা থাকে সেই দিকে নজর দিতে হবে; কারণ পাবলিক প্রাইভেসি ছাড়া কোন ভিডিও আপনি ডাউনলোড করতে পারবেন না।

এছাড়াও আপনি যে ভিডিও ডাউনলোড করতে যাবেন সেই ভিডিও এর লিঙ্ক আপনাকে কপি করে আনতে হবে; এবং তার পরেও সমস্ত ডাউনলোড করার সাইট কিংবা অ্যাপস গুলোর মধ্যে পেস্ট করে দিতে হবে।

যখনই আপনি আপনার পছন্দের ভিডিও এর প্রাইভেসি সম্পর্কে পুরোপুরি নিশ্চিত হয়ে যাবেন; এবং লিংক কপি করে নিবেন ;তখন আপনি চাইলে নিম্নোক্ত সাইটগুলোর সহযোগিতায় সহজে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

 

আশাকরি উপরে উল্লেখিত ফেসবুকের যেকোনো ভিডিও ডাউনলোড করার সফটওয়্যার কিংবা অ্যাপস সম্পর্কে আপনি পুরোপুরি জেনে নিতে পেরেছেন; এবং এবার আপনি আপনার পছন্দের ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

ফেসবুক ভিডিও কল

 

ফেসবুকের মাধ্যমে যে ভিডিও কল দেয়া যায় সে সম্পর্কে আমরা প্রায় সকলেই অবগত আছি; তবে ইদানিং ফেসবুক ভিডিও কল দেয়ার পাশাপাশি আরেকটি নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে।

এর মাধ্যমে আপনি চাইলে খুব সহজেই ভিডিও কলে আপনার কয়েক শত বন্ধুদেরকে যুক্ত করে সবাই একসাথে আড্ডা দিতে পারেন; এটাকে মূলত বলা হয় মেসেঞ্জার রুম।

যে ফিচারস টির মূল লক্ষ্য হলো আপনি যাতে একই সাথে আপনার কয়েক শত বন্ধু এর সাথে ভিডিও কল এর মাধ্যমে যেকোনো সমসাময়িক বিষয় কিংবা আড্ডায় জড়িয়ে পড়তে পারেন।

এই ফিচারটি উপভোগের জন্য আপনাকে প্রথমে মেসেঞ্জার এর অফিশিয়াল অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নিতে হবে; এবং তারপর যখন আপনি আপনার ইনফরমেশন দিয়ে লগইন করে নিবেন; তখন মেসেঞ্জার হোমপেইজে এটি দেখতে পারবেন।

"<yoastmark

আর এই অপশনটিতে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনি চাইলে একই সাথে ভিডিও কলে আপনার অনেক বন্ধু বান্ধব কে যুক্ত করে নিতে পারবেন; এবং ফেসবুক ভিডিও কল দেয়ার এই নতুন ফিচারটি অবশ্যই যে কারো পছন্দের মধ্যে পড়ে।

 

ফেসবুক ভিডিও অটো প্লে

 

অনেক সময় আপনি যখন লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন; যখনই আপনি ফেসবুকের নিউজফিড স্ক্রল করেন তখন এখানে থাকা সমস্ত ভিডিও গুলো অটোমেটিক প্লে হয়ে যায়।

যখনই আপনার নিউজ ফিড এর সমস্ত ভিডিও গুলো অটোমেটিক প্লে হয়ে যাবে তখন আপনার ফোনের ডাটা চার্জ বেশি প্রযোজ্য হবে; এতে আপনার এক্সট্রা মেগাবাইট খরচ হয়ে যাবে।

ফেসবুক ভিডিও অটো প্লে আপনি যদি বন্ধ করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমে ফেসবুকের অফিশিয়াল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ টিতে প্রবেশ করতে হবে।

যখনই আপনি ফেসবুকের অফিশিয়াল অ্যাপস এ প্রবেশ করবেন তখন আপনাকে এখান থেকে সেটিংস অপশনটি সিলেক্ট করে নিতে হবে; সেটিং অপশনে ক্লিক করার পরে Media and Contacts ক্লিক করলে আপনি অটোমেটিক ভিডিও প্লে অপশনটি বন্ধ করতে পারবেন।

"<yoastmark

আর এভাবেই আপনি চাইলে ফেসবুক অটো ভিডিও বন্ধ করার মাধ্যমে আপনার যে ডাটা চার্জ বেশি হয় সেটা রোধ করতে পারবেন।

আশা করি ফেসবুক ভিডিও সংক্রান্ত এই গাইড অবশ্যই আপনার উপকারে আসবে; এবং আপনিও উপরুক্ত সমস্ত বিষয়গুলি সম্পর্কে এবার পুরোপুরি জেনে নিতে পেরেছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × two =

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap