ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো? জেনে নিন শূন্য থেকে শিখরে

ফ্রিল্যান্সিং করে কত টাকা আয় করা যায় এ সম্পর্কে জেনে নেয়ার পরে আপনি নিশ্চয়ই ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখতে হয় বা ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো, সেই দিকে মনোনিবেশ করতে চাইবেন।

এছাড়াও ফ্রিল্যান্সিংয়ের যদি আপনি আপনার ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম ফ্রিল্যান্সিং শিখে নিতে হবে এবং তারপরে ফ্রিল্যান্সিংয়ে যুক্ত হতে হবে।

একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার জন্য আপনি যদি পরিপূর্ণভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান, তাহলে যে যে উপায় শিখতে পারবেন, সেই সম্পর্কে আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করা হবে।

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ঘরে বসে আপনি যদি কোনো একটি স্কিল কে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম এর সহায়তায় টাকা আয় করতে পারেন, তাহলে সেটিকে ফ্রিল্যান্সিং বলা হয়।

ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং হলো, আপনার নলেজ কে কাজে লাগিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয় করা।

ফ্রিল্যান্সিংয়ের আরো বেশি ডেফিনেশন জানার জন্য আপনি চাইলে নিম্নলিখিত আর্টিকেলটি দেখে নিতে পারেন, যেখান থেকে ফ্রিল্যান্সিং এর ডেফিনেশন এবং এর কাজ সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখতে হয়, জানার পূর্বে

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান, তাহলে ফ্রিল্যান্সিং শেখার পূর্বে নিজেকে কয়েকটি প্রশ্ন করতে হবে এবং তারপরে ফ্রিল্যান্সিং শেখার মিশনে নামতে হবে।

নিজেকে প্রশ্ন করতে হবে বলতে, আপনাকে অবশ্যই প্রথমত আপনার পছন্দের একটি ক্যাটাগরি সিলেক্ট করে নিতে হবে। কারন, আপনার একার পক্ষে সব কিছু শেখা সম্ভব নয়।

আর আপনি হয়তো ইতিমধ্যে অবগত রয়েছেন যে, এখানে অনেকগুলো কাজ রয়েছে, সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার পছন্দমত যেকোনো একটি কাজ করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারেন।

এ সমস্ত ক্যাটাগরি গুলোর মধ্যে থেকে প্রথমত আপনাকে যেকোন একটি নিস নির্বাচন করে নিতে হবে, যেটি শেখা আপনার জন্য সহজ হবে এবং এই ক্যাটাগরির মার্কেটপ্লেস অনেক ভালো।

ফ্রিল্যান্সিংয়ে যত সমস্ত কাজ রয়েছে, সে সমস্ত কাজ গুলোর মধ্যে থেকে আপনাকে এমন একটি ক্যাটাগরি খুঁজে বের করতে হবে, যে ক্যাটাগরি কাজ শিখলে আপনি সফল হতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং শেখার পূর্বে আপনার প্রথম কাজ হলো, আপনার পছন্দের একটি ক্যাটাগরি সিলেক্ট করে নেয়া অর্থাৎ যে ক্যাটাগরিতে কাজ করলে আপনি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

ফ্রিল্যান্সিংকে কয়েক শত রকমের কাজ রয়েছে, এই সমস্ত কাজ গুলোর মধ্যে থেকে আপনার পছন্দের কাজ বেছে নিতে চাইলে নিম্নলিখিত কাজগুলো দেখে নেন।

উল্লেখিত আর্টিকেলে ফ্রিল্যান্সিংকে যে সমস্ত কাজ করা যেতে পারে সে সমস্ত কাজ এর লিস্ট সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। যেখান থেকে আপনি আপনার পছন্দের কাজটি বেছে নিতে পারবেন।

যখনই আপনি আপনার পছন্দের কাজ বেছে নিবেন, তখন আপনাকে এই ফ্রিল্যান্সিং শেখার মিশনে নামতে হবে এবং কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে হয়, সে সম্পর্কে জানতে হবে।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখবো?

আপনি যদি আপনার পছন্দের ক্যাটাগরির নির্বাচন করে নিতে পারেন, তাহলে এবার আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং শেখার অধীনে চলে যেতে হবে।

অর্থাৎ আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে এরকম কিছু উপায়, যে উপায়ে আপনি চাইলে খুব সহজে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারেন।

আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান, তাহলে আপনি দুই টি উপায়ে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন।

  • ঘরে বসে ফ্রিতে ফ্রিল্যান্সিং শেখা।
  • প্রিমিয়াম কোর্স দেখে ফ্রিল্যান্সিং শেখা।

যে বা যারা ফ্রিল্যান্স হয়েছে, তারা উপরে উল্লেখিত দুইটি উপায়ের মধ্যে থেকে যে কোন একটি উপায় অনুসরণ করার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সার হয়েছে।

তাহলে এবার জেনে নেয়া যাক উপরে উল্লেখিত দুটি উপায়ে কিভাবে যথাযথভাবে কাজে লাগাবেন, ফ্রিল্যান্সার হওয়ার ক্ষেত্রে।

ঘরে বসে ফ্রিতে ফ্রিল্যান্সিং

আপনি যদি ঘরে বসে ফ্রিতে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান, তাহলে আপনার সামনে অনেকগুলো অপশন খোলা থাকবে।
যেখান থেকে আপনি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারেন।

ঘরে বসে ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য আপনার শুভাকাঙ্খী বন্ধু হতে চলেছে ইউটিউব। এক্ষেত্রে ইউটিউব ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার পছন্দের কোর্স খুঁজে বের করে নিতে পারবেন।

ইউটিউব হল এমন একটি প্লাটফর্ম যে প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি আপনার ক্যাটাগরি রিলেটেড অনেকগুলো কাজ এবং কোর্স ফ্রিতে পেয়ে যাবেন।

আপনাকে শুধুমাত্র আপনার পছন্দের কিওয়ার্ড ইউটিউবে সার্চ করে নিতে হবে এবং তারপরে এই রিলেটেড রেজাল্ট গুলো দেখার মাধ্যমে ভালো রেজাল্ট খুঁজে বের করতে হবে।

উদাহরণস্বরূপ, আমি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শেখার জন্য আগ্রহী, তাহলে আমি ইউটিউবে সার্চ দেবো ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ফুল কোর্স।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ফুল কোর্স লিখে সার্চ দেওয়ার পরে ইউটিউবে সার্চ লিস্টে আমায় অনেকগুলো রেজাল্ট দেখাবে। এবার এই সমস্ত রেজাল্ট থেকে সর্বোৎকৃষ্ট রেজাল্ট বেছে নিতে হবে।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব? জেনে নিন শূন্য থেকে শিখরে

উপরে উল্লেখিত উপায় যখন আপনি ইউটিউবে সার্চ করে দিবেন, তখন আপনি ওই রিলেটেড অনেকগুলো সার্চ রেজাল্টে দেখতে পারবেন এবং এখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় কোর্স ফি নিতে পারবেন।

এছাড়াও আরও কয়েকটি উপায়ে আপনি চাইলে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন। আর সেগুলো হলঃ

  • ফ্রী পিডিএফ পড়ার মাধ্যমে।
  • বিভিন্ন রকমের গ্রুপে জয়েন হওয়ার মাধ্যমে।
    কমিউনিটি এর মাধ্যমে।
  • আপনার আশেপাশে থাকা কোন বড় ভাইয়ের মাধ্যমে।
  • ইন্টারনেটে সারাক্ষণ ঘাটাঘাটি করার মাধ্যমে ইত্যাদি।

উপরে উল্লেখিত উপায় ছাড়া আরও বিভিন্ন উপায়ে আপনি ফ্রিতে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন। তবে এখান থেকে সবচেয়ে কার্যকরী হলো ইউটিউবে ভিডিও দেখার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শেখার কাজ শুরু করা।

পেইড ফ্রিল্যান্সিং শেখা

কথ্য একটি কথা রয়েছে ফ্রী বলতে কিছুই হয় না। হবে এই কথাটি সব ক্ষেত্রে সঠিক না হতে পারে। এক্ষেত্রে আপনাকে ফ্রি পাওয়ার পরেই ফ্রি কে প্রিমিয়াম হিসেবে ব্যবহার করতে হবে।

তবে আপনি যদি খুব গাইডলাইন এর সহায়তায় একটি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স করতে চান, তাহলে আপনি প্রিমিয়াম ফ্রিল্যান্সিং কোর্স ক্রয় করে নিতে পারেন।

পেইড ফ্রিল্যান্সিং কোর্স এর মাধ্যমে আপনি যে সমস্ত গাইডলাইনের সহায়তায় ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন, সেগুলো ফ্রি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স এর মধ্যে সম্ভব নয়।

যে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে আপনি প্রিমিয়াম ফ্রিল্যান্সিং কোর্স কালেক্ট করে নিতে পারবেন সেগুলোর লিস্ট নিচে তুলে ধরা হলো।

উপরে উল্লেখিত ওয়েবসাইটের প্রিমিয়াম কোর্সগুলো ছাড়াও আপনি আরও বিভিন্ন রকমের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করার মাধ্যমে প্রিমিয়াম ফ্রিল্যান্সিং কোর্স ক্রয় করতে পারবেন।

পেইড ফ্রিল্যান্সিং কোর্স কেন কিনবেন?

আপনি যদি প্রিমিয়াম ফ্রিল্যান্সিং কোর্স কিনেন, তাহলে বিভিন্ন রকমের সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন, সেগুলোর মধ্যে থেকে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি নিচে মেনশন করা হলো।

  • প্রতিদিনের কাজ প্রতিদিন শেষ।
  • এসাইনমেন্ট করার মাধ্যমে নিজেকে ঝালিয়ে নেয়া।
  • দক্ষ মেন্টর সাপোর্ট পাওয়া।
  • কোথাও আটকে গেলে সে সম্পর্কে সঠিক সমাধান পাওয়া।
  • আপনার কাজের একটি সার্টিফিকেট, ইত্যাদি।

উপরে উল্লেখিত সুযোগ-সুবিধাগুলো ছাড়াও আরও বিভিন্ন রকমের সুযোগ-সুবিধা আপনি প্রিমিয়াম কোর্স থেকে উপভোগ করতে পারবেন।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিংয়ে ভাল হবেন?

এই টপিক নিয়ে কথা বলার পূর্বে একটি বিষয় বলে রাখা ভাল আর সেটি হলো, অনেকেই প্রিমিয়াম কোর্স ক্রয় করার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবে না।
আবার অনেকেই ফ্রী কোর্স এর মাধ্যমে পুরোপুরি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবে।

উপরের, উল্লেখিত কথাটা একটু কঠিন মনে হলেও এটা কিন্তু সত্যি। আপনি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন কিনা সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আপনার মনবল এবং ধৈর্যের উপরে।

আপনার মনবল এবং ধৈর্য যদি অটুট থেকে থাকে, তাহলে আপনি এই মনোবল এবং ধৈর্যের কারনে ফ্রিল্যান্সিং শিখে নিতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য আপনাকে লেগে থাকতে হবে, লেগে থাকতে না পারলে ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম আপনার জন্য নয়।

যদি আপনি লেগে থাকতে পারেন,তাহলে প্রিমিয়াম কোর্স এর কোনো প্রয়োজন নেই। আপনি চাইলে ইউটিউব থেকে বিভিন্ন রকমের রিসোর্স কালেক্ট করার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ শিখে নিতে পারবেন।

তাও যে কোনো রকমের স্ট্রাগল এই মুহূর্তে আপনার যদি অদৌর মেন্টালিটি থেকে থাকে, তাহলে আপনি অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবেন এবং ফ্রীল্যান্সিংয়ে সফল হতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো এর একটাই মূলমন্ত্র, আর সেটা হল, কঠোর মনোবল এবং ধৈর্য। যার মনবল যত বেশি কঠিন, তার ফ্রিল্যান্সিং শেখার মিশন তত বেশি সহজ।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো এবং ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে হলে কি কি করতে হবে? সে সম্পর্কে আশাকরি, বিস্তারিত জেনে নেয়া গেছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Share via
Copy link