আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই | ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

আমাকে অনেকেই ইমেইল করে কথাটি বলে থাকেন যে, ভাই, আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই? আমার ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে দেখব?

আর যারা আমাকে ইমেইল করে আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই এই সম্পর্কে জেনে নিতে চেয়েছেন কিংবা আপনি যদি এ সম্পর্কে জেনে নিতে চান, তাহলে এই আর্টিকেলটি দেখে নিতে পারেন।

এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে মূলত যারা ইমেইল করে আমাকে আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই, এই রিলেটেড প্রশ্ন করেছেন তারা এ সম্পর্কে জেনে নিতে পারবেন।

আপনার ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে দেখবেন?

আপনার ভোটার আইডি কার্ড দেখার জন্য আপনি চাইলে মাত্র কয়েকটি স্টেপ ফলো করতে পারেন, যার মাধ্যমে আপনি চাইলে সহজেই ভোটার আইডি কার্ড দেখে নিতে পারেন।

ভোটার আইডি কার্ড দেখার জন্য আপনাকে প্রথমত নিম্নলিখিত লিংকে ভিজিট করতে হবে।

Check ID Card

এখনই আপনি উপরে উল্লেখিত লিঙ্কে প্রবেশ করবেন, তখন আপনার সামনে নিম্নলিখিত স্ক্রীনশটএর মত একটি পেজ ওপেন হবে, এখানে মূলত চারটি বক্স ফিলাপ করলে আপনি আইডি কার্ড৷ ইনফো দেখে নিতে পারবেন।

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই | ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / ফর্ম নম্বরঃ এই বক্সটিতে মূলত আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম্বার কিংবা আপনাকে যে ফ্রম দিয়েছে, সেই ফরম নাম্বার বসিয়ে দিতে হবে।

অর্থাৎ আপনি যদি নতুন ভোটার আইডি কার্ডের নাম উঠিয়ে থাকেন, তাহলে নিশ্চয়ই আপনাকে একটি স্লিপ কিংবা একটি ফর্ম দিয়েছে। এই ফর্মটটিতে কয়েকটি নাম্বার রয়েছে।

এই নাম্বার গুলো কিংবা আপনার কাছে যদি পুরাতন আইডি কার্ড থেকে থাকে, তাহলে এই পুরাতন আইডি কার্ডের নাম্বার গুলো প্রথম বক্সটিতে বসিয়ে দিন।

জন্ম তারিখঃ আপনি যে ভোটার আইডি কার্ড তৈরি করেছেন, সেই ভোটার আইডি কার্ডে আপনার জন্ম তারিখ মেনশন করা হয়েছে সে জন্ম তারিখ দিন, মাস এবং বছর যথাযথভাবে পরবর্তী তিনটি বক্সে বসিয়ে দিন।

আপনি কোন বক্সে কোন ডাটা বসাবেন, সে সম্পর্কে প্রত্যেকটি বক্সে যথাযথভাবে উল্লেখ করা রয়েছে, কাজেই দেখেশুনে ভালোভাবে বসিয়ে দিন।

Note: আপনার জন্ম তারিখ যদি এক সংখ্যার হয়ে থাকে, অর্থাৎ ৫ জানুয়ারী এভাবে হয়ে থাকে, তাহলে আপনাকে ০৫ এইভাবে লিখতে হবে, এক সংখ্যার তারিখ হয়ে থাকলে সামনে একটি ০ বসিয়ে দিতে হবে।

ছবিতে প্রদর্শিত কোডঃ একদম সর্বশেষ বক্সে আপনাকে মূলত রি ক্যাপচা জানতে চাইবে। এখানে এই বক্সটি ফিলাপ করার জন্য, এই বক্সের উপরে যে ছবি রয়েছে সেই ছবিটির দিকে নজর দিতে হবে।

অর্থাৎ এখানে যে সংখ্যা অথবা অক্ষর দেয়া রয়েছে, সেই সংখ্যা বা অক্ষর ভালভাবে দেখে শুনে তারপরে বক্সটিতে বসিয়ে দিতে হবে।

সমস্ত তথ্য যথাযথভাবে ফিলাপ করে নেয়ার পরে একদম সর্বশেষে ভোটার আইডি কার্ড কিংবা আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই , এই রিলেটেড প্রশ্নের অবসান ঘটাতে হলে একদম সর্বশেষে ❝ভোটার তথ্য দেখুন❞ নামে যে আইকন রয়েছে সেটিতে ক্লিক করতে হবে।

যদি আপনার দেয়া প্রত্যেকটি ইনফর্মেশন সঠিক হয়ে থাকে এবং রি ক্যাপচা সঠিকভাবে বসিয়ে দিতে পারেন, তাহলে সহজেই আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড তথ্য দেখতে পারবেন।

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই | ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই ভোটার তথ্য দেখে নিতে পারবেন।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

ভোটার আইডি কার্ড ইনফো দেখা হয়ে গেলে, আপনি যদি এবার আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে চান, তাহলে আপনি এই ডাউনলোড কার্য কিভাবে সম্পন্ন করবেন, সেটি সম্পর্কে নিচে থেকে জেনে নিন।

এই কাজটি করার জন্য আপনাকে নিম্নলিখিত আর্টিকেলটি দেখে নিতে হবে, তাহলে আপনি খুব সহজেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার কাজ সম্পন্ন করে নিতে পারবেন।

উপরে উল্লেখিত আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে, কিভাবে আপনি চাইলে কয়েকটি স্টেপ করার মাধ্যমে খুব সহজে আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

আর এটি হলো, ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করার নিয়ম এবং খুব সহজে কিভাবে আপনি চাইলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারেন, সেই সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য।

কিছু বোনাস টিপসঃ

আর্টিকেলের একদম শুরুতে আপনি যখন আপনার ভোটার আইডি কার্ড যাচাই করেছেন কিংবা ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য দেখেছেন, সেখানে নিশ্চয়ই আপনাকে ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার দেয়া হবে।

অর্থাৎ আপনার কাছে যে স্লিপ নম্বর রয়েছে, সেই স্লিপ নাম্বার ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি চাইলে ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার টি দেখে নিতে পেরেছেন।

এক্ষেত্রে আপনার একটি কাজ আরো বেশি সহজ হয়ে গেল; কারণ আপনি যদি স্লিপ নাম্বার থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার টি পেয়ে যান, তাহলে এই আইডি কার্ডের নাম্বার দেয়ার মাধ্যমে আপনি আইডি কার্ড সহজে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

কারণ আইডি কার্ড ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই আপনার স্লিপের যে নাম্বার রয়েছে, সেই নাম্বারটি দেয়ার মাধ্যমে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের কয়েকটি নাম্বার কালেক্ট করে নিতে হয়।

এক্ষেত্রে এই নাম্বারটি কালেক্ট করে নেওয়ার জন্য আপনাকে নির্বাচন কমিশনার যে ওয়েবসাইট রয়েছে, সেই নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে মেসেজ করতে হয়, আপনার কাঙ্খিত ইনফর্মেশন দেয়ার মাধ্যমে।

দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, আপনি যদি নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে মেসেজ দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আপনার কাংখিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য কিছুদিন অপেক্ষা করতে হয়।

অর্থাৎ মেসেজ দিয়ে আপনাকে যদি আপনার আইডি কার্ড ইনফর্মেশন জানতে হয়, তাহলে আপনাকে কিছুদিন অপেক্ষা করতে হয়, তারপরে সবকিছু ঠিক থাকলে আপনাকে নাম্বারটি দেয়া দেয়।

এই কাজটি আপনি খুব সহজে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য যাচাই করার মাধ্যমেই কালেক্ট করে নিতে পারেন।

এবং যখনই আপনি ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য যাচাই করে নেয়ার মাধ্যমে আপনার আইডি কার্ডের নাম্বারটা কালেক্ট করে নিতে পারবেন, তখন আপনি এই আইডি কার্ডের নাম্বার দেয়ার মাধ্যমে সহজেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

এজন্য আপনি যদি আপনার সময় বাঁচাতে চান এবং ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড এর কাজ আরো বেশি সহজতর ভাবে করতে চান, তাহলে প্রথমে উল্লেখিত ইনফর্মেশন অনুযায়ী কার্ডের ইনফর্মেশন দেখে নিন।

যখনই আপনি আপনার আইডি কার্ডের ইনফর্মেশন গুলো দেখে নিতে পারবেন, তখন আপনি সহজেই এই আইডি কার্ডের ইনফর্মেশন দেয়ার মাধ্যমে লাইভ ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

আমার ভোটার আইডি কার্ড দেখতে চাই এই রিলেটেড ইনফরমেশন রয়েছিল, সেই ইনফরমেশন সম্পর্কে আশাকরি, আপনি জেনে নিতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top
Share via
Copy link