নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি | নগদ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম |

একটিমাত্র নগদ একাউন্ট দিয়ে আপনি চাইলে ফান্ড ট্রান্সফার, মোবাইল রিচার্জ সহ বিভিন্ন রকমের কার্যক্রম সম্পাদন করতে পারেন। এইসমস্ত কার্যক্রম আপনি একদম ফ্রিতে করতে পারেন।

আর আপনি যদি নগদ একাউন্ট এর সমস্ত সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি জেনে একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে হবে।

আপনি চাইলে নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে কিংবা ঘরে বসেই একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারেন। আজকের এই পোস্টটিতে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

 

নগদ একাউন্ট খোলার অফার

 

আপনি যদি নগদ একাউন্ট খুলেন তাহলে নগদ একাউন্ট খোলার অফার সম্পর্কে আপনার অবশ্যই জানা দরকার। যখনই আপনি নতুন নগদ একাউন্ট করবেন তখন 25 টাকা বোনাস পাবেন।

এছাড়াও নগদ একাউন্ট খোলার অফার হিসেবে পাবেনঃ আপনি যখন অ্যাকাউন্ট তৈরি করে পিন সেট আপ করার পর আপনার একাউন্টে ক্যাশ ইন করবেন; তখন লাখপতি হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

তবে আপনি লাখপতি হতে পারেন কিংবা না আপনি একাউন্ট খুললেই অবশ্যই 25 টাকা বোনাস পাবেন। যা নগদ একাউন্ট খোলার অফার হিসেবে পরিচিত।

 

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি

 

আপনি চাইলে দুইটি ভিন্ন উপায়ে নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। নগদ একাউন্ট খোলার জন্য আপনি চাইলে প্রথমত নগদ এর অফিশিয়াল অ্যাপস ব্যবহার করতে পারেন অথবা মোবাইল ফোনে ইউএসডি কোড ডায়াল করার মাধ্যমে একাউন্ট খুলতে পারেন।

নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে অ্যাকাউন্ট খুলুন

আপনি যদি নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে নতুন একটি নগদ একাউন্ট তৈরী করতে চান; তাহলে আপনাকে প্রথমে গুগল প্লে স্টোর বা আ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

যখনই অ্যাপসটি ডাউনলোড করা হয়ে যাবে তখন আপনাকে একাউন্ট খোলার জন্য কিছু স্টেপ ফলো করতে হবে। যা নিচে আলোচনা করা হলো।

  • অ্যাপস টি ডাউনলোড করা হয়ে গেলে এটি প্রথমে ওপেন করুন; এবং তার পরে তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা পড়ে নিন।
  • এবার আপনি বাংলা কিংবা ইংরেজি ভাষায় ব্যবহার করতে চান সেটি সিলেক্ট করে নিন। এবং অ্যাপসটিতে প্রবেশ করার পর আপনি এখানে এর
    “রেজিস্ট্রেশন” নামের একটি বাটন পাবেন।
  • রেজিস্ট্রেশন নামের বাটনে ক্লিক করার পরে আপনার মোবাইল নাম্বার এখানে লিখে দিন। যে নাম্বার দিয়ে আপনি নগদ একাউন্ট খুলবেন।
  • এবার আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি আপলোড করার কথা বলবে। আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের উপরের অংশ এবং নিচের অংশের ছবি তুলে দিন।
  • ছবি তুলে দেওয়ার পরে যে তারা সবকিছু যখন স্ক্যান করে নিবে তখন আপনার একটি সেলফি তুলে দিতে হবে। এবং তার পরে তাদের টার্মস এবং কন্ডিশন এর সাথে একমত পোষণ করতে হবে।
  • এবার আপনার একাউন্টে সমস্ত ইনফরমেশন ঠিক থাকলে; আপনার একাউন্টের পিন সেট আপ করে দিলেই নগদ একাউন্ট খোলা সম্পন্ন হয়ে যাবে।

এবং তারপরে আপনি আপনার প্রোফাইল সেটাপ করতে পারবেন এবং একাউন্ট যে টাইপের তৈরি করেছেন সেটি সেটআপ করতে পারবেন। এটাই মূলত হলো নগদ একাউন্ট তৈরি করার একটি পদ্ধতি।

ইউএসডি কোড টাইপ করে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি

আমাদের মধ্যে যারা গ্রামীণফোন, রবি এবং এয়ারটেল সিম ব্যবহারকারী; তাদের জন্য জন্য নগদ একটি অভিনব সুবিধা নিয়ে এসেছে।

রবি, গ্রামীণফোন এবং এয়ারটেল ব্যবহারকারীরা যদি তাদের সিম থেকে *167# ডায়াল করে নেয়; তাহলে একটি পিন সেটআপ করার মাধ্যমে নতুন অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলবে।

ইউএসডি কোড টাইপ করে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি
ইউএসডি কোড টাইপ করে নগদ একাউন্ট তৈরি করার পদ্ধতি

আপনি যখনই *167# ডায়াল করবেন তখন নতুন পিন সেটআপ করার অপশন পাবেন। এখানে আপনি 4 ডিজিটের একটি পিন দিয়ে দিলেই আপনার নগদ একাউন্ট একটিভ হয়ে যাবে।

আর আপনি এভাবে চাইলেই খুব সহজে নতুন একটি নগদ একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন; এবং নগদ একাউন্ট এর সমস্ত অফার উপভোগ করতে পারবেন।

নগদ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

 

আপনি যদি নগদ এজেন্ট একাউন্ট খুলতে চান; তাহলে আপনাকে প্রথমত নগদের যে সার্ভিস পয়েন্ট রয়েছে সেখানে যেতে হবে

আপনার আশেপাশে থাকা নগদ ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে। আপনি যদি নগদ ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করতে না পারেন; তাহলে আপনার আশেপাশে থাকা নগদ এজেন্ট এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

কারণ নগদ এজেন্ট এর সাথে আপনি যখন যোগাযোগ করবেন তখন তারা আপনাকে নগদ ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করার সহজ পন্থা সম্পর্কে বলে দিতে পারবে।

নগদ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম হিসেবে আপনার কাছে যে বিষয়গুলো বাধ্যতামূলক থাকা দরকার সেগুলো হলোঃ

  • যে কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ট্রেড লাইসেন্স।
  • ট্রেড লাইসেন্স এর ছবি এবং আপনার এনআইডি কার্ড।
  • সম্পূর্ণ নতুন একটি ফোন নাম্বার যা দিয়ে এখনও নগদ একাউন্ট খোলা হয়নি।

উপরোক্ত বিষয়গুলো যখন আপনি নগদ ডিস্ট্রিবিউশন ম্যানেজারের কাছে জমা দিবেন; তখন আপনি যদি নগদ এজেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য উপযোগী হন তাহলে সেই সম্পর্কে সে আপনাকে জানিয়ে দিবে।

এই প্রসেস টি শেষ হয়েছে মূলত 20 থেকে 30 দিনের মতো সময় লাগতে পারে। আপনি এজেন্ট হওয়ার জন্য উপযোগী হলে পরবর্তী সময়ে তারা আপনাকে একটি এজেন্ট সিম দিয়ে দিবে।

 

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং ডায়াল কোড

 

নগদ একাউন্ট খোলার পরে আপনি নগদ মোবাইল ব্যাংকিং ডায়াল কোড এর মাধ্যমে আপনার একাউন্ট মেনটেন করতে পারবেন।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং ডায়াল কোড : *167# ” যা আপনি যে সিম থেকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করেছিলেন সে সিম থেকে ডায়াল করলেই আপনার অ্যাকাউন্টের মেনু বার দেখতে পারবেন।

এবং এই কোড ডায়াল করার মাধ্যমে আপনি চাইলে টাকা ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, মোবাইল রিচার্জ ,বিল পেমেন্ট সহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

Leave a Comment

9 + 7 =