ফ্রি ভিপিএন কি? ভিপিএন ডাউনলোড এবং ভিপিএন এর কাজ

ভিপিএন সম্পর্কে আমাদের সকলেরই মোটামুটি রকমের ধারণা রয়েছে, ভিপিএন হল এমন এক ধরনের টুলস যেগুলোর সহযোগিতায় আপনি গায়ে চাদর ঢাকা দিয়ে ইন্টারনেটে ভ্রমণ করতে পারেন।

ব্যাপারটা এরকম যে আপনি চাইলে আপনার সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ ইনফরমেশন গুলো কে গোপন করার মাধ্যমে ইন্টারনেটের জগতে নিশ্চিন্তে ভ্রমণ করতে পারেন।

কারণ আপনি যখনই কোনো একটি ভিপিএন ব্যবহার করবেন তখন ওই ভিপিএন আপনার সমস্ত ইনফরমেশন গুলো হাইড করে দিবে এবং একটি ভার্চুয়াল আইপি আপনাকে উপহার দিবে।

 

ভিপিএন কি?

 

ভিপিএন হল এমন এক ধরনের সাহায্যকারী টুলস অথবা অ্যাপস যার সহযোগিতায় আপনি আপনার নিজস্ব আইপি অ্যাড্রেস লুকিয়ে ফেলতে পারেন।

আইপি অ্যাড্রেস হল এমন এক ধরনের সত্তা যার মাধ্যমে যে কোনো ব্যবহারকারী আপনাকে সহজেই চিনে নিতে পারে, অর্থাৎ আইপি অ্যাড্রেস আপনাকে সহজভাবে ট্রাক করতে সাহায্য করে।

তবে আপনি যখন একটি ভিপিএন ব্যবহার করবেন তখন আপনার ওই আইপি অ্যাড্রেস লুকিয়ে ফেলা হবে, আপনাকে একটি ভার্চুয়াল আইপি এড্রেস দেয়া হবে।

ফলশ্রুতিতে যে কেউ এটা অনুভব করতে পারবে যে আপনি ইন্টারনেটের জগতে ভ্রমন করছেন, কিন্তু আপনি কোথা থেকে এবং কিভাবে ভ্রমন করছেন সেই সম্পর্কে তারা কোনো ধারণা কখনোই পাবে না।

 

ভিপিএন এর কাজ কি?

 

ভিপিএন এর কাজ হল এটি আপনাকে ইন্টারনেট জগতে ইচ্ছামত ভিজিট করতে সহযোগিতা করে, আপনি ভিপিএন এ থাকা বিভিন্ন proxy ব্যবহার করে যেকোন সাইট আনলক করতে পারেন।

উদাহরণস্বরূপ, আপনি একটি সাইটের এক্সেস নিতে চান এবং এই সাইটের অ্যাক্সেস নিতে হলে আপনাকে অবশ্যই আমেরিকার বাসিন্দা হতে হবে, এবার আপনি বাংলাদেশ থেকে এই ওয়েবসাইটের এক্সেস কিভাবে নিবেন?

এক্ষেত্রে আপনি যখন ভিপিএন ব্যবহার করবেন তখন আপনার ভিপিএন এর প্রক্সি পরিবর্তন করার মাধ্যমে যখন আপনি এটি আমেরিকাতে সেটআপ করে দিবেন, তখন আপনি ওই সাইট আনলক করতে পারবেন।

আর ভিপিএন এর কাজ মূলত হলো এটাই যে, ভিপিএন আপনাকে বিভিন্ন রকমের সাইট আনলক করতে সহযোগিতা করবে, এবং আপনি নিশ্চিন্তে ব্রাউজ করতে পারবেন।

 

ভিপিএন কিভাবে কাজ করে?

 

ভিপিএন মূলত ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে কাজ সম্পাদন করে, তাদের বিভিন্ন প্রটোকল রয়েছে যেগুলো সহযোগিতায় তারা আপনার কাজগুলো কে সম্পাদন করতে সহায়তা করে।

এই সমস্ত ভিপিএন গুলো মূলত কয়েকটি সোর্স code বা এইচটিএমএল অথবা অন্য যে কোন ধরনের প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর দ্বারা পরিচালিত হয়, এবং এতে করে এগুলো আপনার প্রাইভেসিকে রেস্পেক্ট করতে সহায়তা করে।

 

ভিপিএন দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট:

 

আপনি হয়তো এই সম্পর্কে পূর্বে থেকে অবগত আছেন যে আপনি চাইলে ভিপিএন এর সাহায্যে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে সবচেয়ে কার্যকরী ব্যাপার এটাই যে, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকমের ভিপিএন আপনার ফ্রি ইন্টারনেট এর কাজে ব্যবহৃত হয়, সব সময় একই ভিপিএন দ্বারা আপনি ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন না।

এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই research করার মাধ্যমে বর্তমান সময়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করা কিভাবে সম্ভব হচ্ছে সেই সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে।

তবে বর্তমান সময়ে আপনি যে সমস্ত ভিপিএন এর মাধ্যমে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন সেই সমস্ত ভিপিএন গুলোর লিস্ট আমি নিচে দিয়ে দিচ্ছি।

আপনি চাইলে ভিপিএন দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করার ক্ষেত্রে নিচের দেয়া ভিপিএন গুলো সহজেই ব্যবহার করতে পারেন, এবং সারাজীবন ধরে আপনি ফ্রি ইন্টারনেট উপভোগ করতে পারেন।

স্কাই ভিপিএন ফ্রি নেট 

আপনি চাইলে স্কাই ভিপিএন এর মাধ্যমে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন, এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই উপরে উল্লেখিত লিঙ্ক থেকে অ্যাপসটি ডাউনলোড করে নিতে হবে।

এছাড়াও আপনি যদি খুব সহজে ভিপিএন দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চান তাহলে নিচের দেওয়া লিংকে ভিজিট করতে পারেন।

এই পোস্টটিতে পরিপূর্ণ আলোচনা করা হয়েছে কিভাবে আপনি ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন, আশা করি পোস্টটি আপনার উপকারে আসবে।

এই পোস্টটি পড়ুন

আশাকরি উপরুক্ত পোস্ট এর সহযোগিতায় আপনি ভিপিএন দিয়ে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করার উপায় রয়েছে সে সম্পর্কে জেনে নিতে পেরেছেন।

মোবাইল ভিপিএন গুলো সর্বাপেক্ষা আপনার কাজে আসে, এবং মোবাইল ভিপিএন এর সহযোগিতায় আপনি আপনার কাজ পুরোপুরি সম্পাদন করতে পারেন।

 

ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক:

 

ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করতে অনেকেরই দেখা যায়, তবে ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করা কতটা যৌক্তিক? মানে এতে কি আপনার কোন সমস্যা হবে?

একটি উদাহরণের সাথে এই বিষয়টিকে পুরোপুরি স্পষ্ট করা যাক, ধরুন আপনি ভিপিএন ছাড়া বর্তমান লোকেশন বাংলাদেশে রয়েছেন এবং আপনি এই লোকেশন থেকে ফেসবুকে লগইন করলেন।

এর পরের কয়েক মিনিট এর মাথায় আপনি আবার ভিপিএন কানেক্ট করলেন, এবং তখন আপনার প্রক্সি পরিবর্তন করে ইউনাইটেড স্টেটস বা অন্য কোন দেশে মাধ্যমে ফেসবুকে লগইন করলেন।

আর আপনি যখন খুব বেশি সংখ্যক সময় ধরে এরকম আপনার আইপি অ্যাড্রেস বা আপনার কান্ট্রি পরিবর্তন করবেন তখন ফেসবুক কি মনে করবে?

নিশ্চয়ই ফেইসবুক তখন মনে করবে যে হয়তো আপনার ফেইসবুক একাউন্ট কেউ হ্যাক করে নিয়েছে, এর মূল কারণ হতে পারে আনঅথরাইজ লগইন, তখন আপনার ফেসবুক আইডির সাথে কি হতে পারে?

নিশ্চয়ই এই সমস্ত লগইন এটেম্পট এর কারণে যখন আপনার ফেসবুক আইডি ফেসবুক কিংবা বিভিন্ন ডিজেবল সংক্রান্ত সমস্যায় পড়বে তখন আপনি ফেসবুকে দোষারোপ করবেন।

তবে এই সংক্রান্ত সমস্যায় আপনার ফেসবুক আইডি মুখোমুখি হওয়ার মূল কারণ বা মূল মন্ত্র আপনি। আর ফেসবুকে আপনার সেফটির জন্য এই সংক্রান্ত সমস্যার মধ্যে আপনার ফেসবুক আইডি ফেলে দেয়, যাতে করে আপনি safe থাকেন।

তাই ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করা থেকে সব সময় বিরত থাকুন, কারণ ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার ফেসবুক আইডিতে দীর্ঘমেয়াদি সমস্যা হতে পারে।

 

ভিপিএন সফটওয়্যার:

 

আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই আপনার এনড্রয়েড ফোন কিংবা পিসি এর জন্য যে সমস্ত ভিপিএন সফটওয়্যার রয়েছে সে সমস্ত সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড করে নিতে হবে।

ভিপিএন অ্যাপস ডাউনলোড করার জন্য আপনি চাইলে নিচের দেয়া লিঙ্ক থেকে আপনার পছন্দের vpn সিলেক্ট মাধ্যমে ভিপিএন এর সংগ্রহ করে নিতে পারেন।

এই সমস্ত সেরা ভিপিএন আপনার প্রাইভেসি এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে, ভিপিএন এর রেটিং ভালো হওয়ায় এগুলো সেরা ভিপিএন হওয়ার কারণে এগুলো আপনার প্রাইভেসি কখনো বিনষ্ট করবে না।

 

ফ্রি ভিপিএন অ্যান্ড্রয়েড:

 

আপনি যদি আপনার এন্ড্রয়েড ফোনের জন্য ফ্রি ভিপিএন ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই পোস্টটি কন্টিনিউ করুন, ফ্রি ভিপিএন অ্যান্ড্রয়েড ডাউনলোড লিংক নিচে দেয়া হল।

অপেরা ভিপিএন

আপনি যদি কোনো একটি ব্রাউজার এর সাথে ফ্রি ভিপিএন উপহার পেতে চান তাহলে উপরে উল্লেখিত অপেরা ভিপিএন ব্যবহার করতে পারেন।

অপেরা ভিপিএন
অপেরা ভিপিএন

অপেরা মূলত হলে একটি প্রাইভেট ব্লাউজার যার মাধ্যমে আপনি যেকোন ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন, তবে আপনি অপেরা ব্রাউজার এর সাথে একটি ফ্রি ভিপিএন উপহার পাবেন।

 সুপার ভিপিএন:

সুপার ভিপিএন হলো মূলত একটি প্রাইভেট ভিপিএন সফটওয়্যার, এই ভিপিএন এর মাধ্যমে আপনি একদম ফ্রিতে যেকোনো ওয়েবসাইটের access নিতে পারবেন।

সুপার ভিপিএন
সুপার ভিপিএন

ভিপিএন এর সবচেয়ে ভালো একটি দিক হলো আপনি যদি এটি ব্যবহার করেন তাহলে যেকোনো প্রক্সি মাত্র এক ক্লিকের মাধ্যমে কানেক্ট করতে পারবেন, এছাড়াও ফ্রিতে আপনি বেশ কয়েকটি প্রয়োজনীয় দেশের proxy পাবেন।

তাহলে আর দেরি না করে এন্ড্রয়েড ফোনের জন্য ফ্রি ভিপিএন গুলোর মধ্যে সবচেয়ে উত্তম সুপার ভিপিএন ডাউনলোড করে নিন।

ভিপিএন মাস্টার

ভিপিএন মাস্টার একটি কার্যকরী ভিপিএন। যাতে থাকা proxy আপনি আনলিমিটেড সময় ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন, এবং সহজে access নিতে পারবেন।

আপনি স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভিপিএন মাস্টার ব্যবহার করতে চান তাহলে এই ভিপিএন এর প্রিমিয়াম প্ল্যান রয়েছে সেটি purchase করতে পারেন, যাতে করে আপনি আনলিমিটেড access পাবেন।

সেরা ভিপিএন গুলোর মধ্যে আরো যে সমস্ত ভিপিএন গুলো আপনি চাইলে ব্যবহার করতে পারেন, সেই সমস্ত ভিপিএন এর লিঙ্ক আমি নিচে দিয়ে দিচ্ছি।

তাহলে আর দেরি না করে এখুনি উপরে উল্লেখিত ভিপিএন সফটওয়্যার গুলো ডাউনলোড করে আপনার এন্ড্রয়েড ফোনে রেখে দিন, ফ্রি ভিপিএন হিসেবে এগুলি খুবই কার্যকরী।

ভিপিএন ডাউনলোড করা হয়ে গেলে এবার এই ভিপিএন এর দ্বারা আপনি কিভাবে কার্য সম্পাদন করবেন সেই সম্পর্কে অবশ্যই জানতে চান তাই না?

 

ভিপিএন সেটিং:

 

যখনই আপনি আপনার পছন্দের ফ্রি ভিপিএন ডাউনলোড করে নিবেন তখন আপনাকে অবশ্যই ভিপিএন সেটিং এর দিকে নজর দিতে হবে।

কারণ ভিপিএন সেটিং করা ছাড়া আপনি এটি ব্যবহার করতে পারবেন না, এছাড়া ভিপিএন যদি আপনি সেটিং না করেন তাহলে আপনি যেকোন সাইট access নিতে পারবেন না।

ভিপিএন সেটিং করা আহামরি কোনো ব্যাপার নয়, এক্ষেত্রে আপনাকে শুধুমাত্র ভিপিএন ডাউনলোড করতে হবে এবং তারপরে এতে প্রবেশ করতে হবে।

যখনই আপনি ভিপিএন এর মধ্যে প্রবেশ করে নিবেন তখন আপনাকে এখান থেকে যে কোন একটি ফ্রী প্রক্সি সিলেক্ট করে নিতে হবে, সিলেক্ট করা হয়ে গেলে তাদেরকে পারমিশন দিয়ে দিলে ভিপিএন কানেক্ট হয়ে যাবে।

ভিপিএন সেটিং
ভিপিএন সেটিং

তবে প্রত্যেক ভিপিএন এর সেটিং এর ব্যাপার মূলত উপরে উল্লেখিত স্ক্রীনশটএর মত হবে না, তবে কানেক্ট করার ব্যাপারটি অবশ্যই সমস্ত ভিপিএন সফটওয়্যার এর মধ্যে প্রায় একই রকম।

আশাকরি উপরে উল্লেখিত গাইডলাইন থেকে আপনি এই সম্পর্কে পুরোপুরি জানিয়েছেন যে ভিপিএন অ্যাপস আসলেই কি? এবং ভিপিএন আপনি কিভাবে ব্যবহার করবেন?

Leave a Comment

4 × 1 =