ফ্রী ইউটিউব চ্যানেল খোলার নিয়ম |

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)



বর্তমান পৃথিবী হলো পুরোটাই তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নির্ভর আপনি চাইলে ইন্টারনেট কে কাজে লাগিয়ে আপনার যে কোন ধরনের কাজ সম্পাদন করে নিতে পারেন।


পুরোটা ইন্টারনেট আর প্রযুক্তিনির্ভর ডিজিটাল পৃথিবীতে আপনি এরকম একজন মানুষ খুঁজে পাবেন না যে কিনা যেকোন কিছুর ভিডিও ফরমেট দেখতে স্বচ্ছন্দ বোধ করে না।


আপনি যেকোন বিষয় সম্পর্কে যখন এক্সট্রিম লেভেল এর কোন ধারণা নিতে চাইবেন তখন আপনি ওই বিষয়টির উপর ভিডিও ফরমেট দেখে নিলে তা পুরোপুরি জানা হয়ে যায়।


এরই ফলশ্রুতিতে বর্তমান সময়ে যে সমস্ত ভিডিও প্লাটফর্ম গুলো রয়েছে যেখান থেকে আপনি কয়েক বিলিয়ন এর অধিক ভিডিও ইনজয় করতে পারেন সেই সমস্ত প্ল্যাটফর্ম গুলোর মধ্যে প্রথম স্থানে “ইউটিউব”।


আপনি চাইলে খুব সহজেই ইউটিউব ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার যে কোন কিছুর সমাধান অচিরেই পেয়ে যেতে পারেন কিছু বিশেষজ্ঞদের প্রমাণ করা ভিডিও এর মাধ্যমে।


আর আপনার মধ্যে যদি এরকম কোন স্ক্রিল থাকে যাতে করে আপনি এটা মনে করেন আপনি অন্যান্য সবাইকে শেখানোর মত যোগ্যতা রাখেন তাহলে আপনি এই প্লাটফর্মে একটি ফ্রি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন।


আর কিভাবে খুব সহজেই একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা যায় এবং ইউটিউব চ্যানেলের পুরোপুরি কাস্টমাইজেশন কিভাবে করবেন এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই পোস্টটি কন্টিনিউ করুন।

ইউটিউব চ্যানেল কি?



ইউটিউব এ ব্যবহৃত একটা সত্তা হল ইউটিউব চ্যানেল, যার মাধ্যমে যেকোনো ধরনের এক্সপার্ট তার নলেজ গুলো যে কারো সাথে শেয়ার করে এবং ফলশ্রুতিতে আমরা নতুন কিছু শিখতে পারি। 


মূলত যতজন ইউটিউব ব্যবহারকারী রয়েছে তারা যদি একটি লাইক কিংবা কমেন্ট করতে চায় তখনই শুধু মাত্র তাদের গুগল একাউন্টের নাম কিংবা কাস্টমাইজ করা নামের দ্বারা একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে ফেলে।

ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে লাভ কি?



আপনি যে সমস্ত এক্সপার্টদের ইউটিউবে বিভিন্ন রকমের ভিডিও তৈরি করতে দেখেন সেই সমস্ত এক্সপার্টরা কেন বীর্য তৈরি করছে? তারা কি এতে কোন ফায়দা লুটছে?


অবশ্যই হ্যাঁ, ঐ সমস্ত এক্সপার্টরা মূলত তাদের ইউটিউব চ্যানেলে তাদের জ্ঞান আপনার সাথে ভাগাভাগি করে নেয়, এবং ফলশ্রুতিতে এর পরিবর্তে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করে নেয়।


অবশ্য এটা তাদের জ্ঞানের পরিবর্তে উপার্জিত টাকা যা আপনি চাইলেও আয় করে নিতে পারেন, তবে আপনার জ্ঞান শেয়ার করার আগে আপাতত একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা যাক।

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন?



ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে হবে আপনাকে প্রথমে অবশ্যই একটি গুগোল অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে, কিভাবে সহজে একটি সিকিউর গুগোল একাউন্ট তৈরি করবেন সেটা জানতে নিচের পোস্টটি দেখে আসুন।



যখন আপনি গুগল অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিবেন তখন আপনি চাইলে দুইটি উপায় ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নিতে পারেন, এর মধ্যে একটি হলো ইউটিউব এর ওয়েবসাইট ব্যবহার করে, আর অন্যটি হলো মোবাইল অ্যাপস ব্যবহার করে।


আপনি যদি সরাসরি গুগল ক্রোম থেকে কিংবা অন্য যে কোন ব্রাউজার থেকে একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চান তাহলে আপনাকে প্রথমত নিচের দেওয়া লিংকে ভিজিট করতে হবে।

Create YouTube Channel


যখনই আপনি উপরোক্ত লিংকে ভিজিট করবেন তখন আপনার সামনে ইউটিউব এর হোম পেজ ওপেন হয়ে যাবে যেখান থেকে আপনি আপনার প্রথম ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারবেন।


চ্যানেল খুলতে হলে অবশ্যই আপনাকে এই ব্রাউজারে আপনার যে জিমেইল একাউন্টের দ্বারা ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চান সেই একাউন্ট যথাযথভাবে লগইন করে নিতে হবে।


লগইন সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনি যখন ইউটিউব এর ওয়েবপেইজের হোমপেজে চলে যাবেন তখন ডানদিকের উপরের দিকে আপনি আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট দেখতে পারবেন। 


এখান থেকে অবশ্যই আপনি যে গুগল একাউন্টের তারা ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চান সেটি সিলেক্ট করে নিন।


এবং যখনই আপনি আপনার গুগোল অ্যাকাউন্ট এর উপরে ক্লিক করবেন তখন আপনি এখান থেকে Create a channel অপশনটির উপরে ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)



এবং যখন আপনি ক্রিয়েট একাউন্ট অপশনটির উপরে ক্লিক করবেন তখন আপনাকে যথাক্রমে Get started এবং তারপরে Use a custom name এই অপশনটির উপরে ক্লিক করে দিতে হবে।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)



ইউজে কাস্টম নেম অপশনটির উপরে যখন আপনি ক্লিক করবেন তখন আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের জন্য একটি সুন্দর নাম নির্বাচন করতে হবে।


নাম নির্বাচনের আগে আপনাকে অবশ্যই এই সম্পর্কে নিশ্চিত রাখতে হবে যে আপনি আসলে কি ক্যাটাগরি রিলেটেড ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চাচ্ছেন, এবং তারপরে আপনার নামটি সিলেক্ট করে নিতে হবে।


এই নাম সিলেকশন এর ব্যাপার আপনার চ্যানেলের উপর খুব বেশি প্রভাব ফেলবে, কারণ আপনি যদি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের নাম ফটোগ্রাফি রিলেটেড দেন এবং তারপরে এতে যদি ব্লগার রিলেটেড ভিডিও কনটেন্ট আপলোড দেন, তাহলে কখনোই সফল হতে পারবেন না।


ব্যাপারটা এরকম যখন কেউ ফটোগ্রাফি রিলেটেড কনটেন্ট গুলো দেখবে তখন ফটোগ্রাফি প্রেমিক আপনার চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করবেন,  এবং তারা আপনার চ্যানেলের সাথে কন্টিনিউ করবেন।


কিন্তু আপনি যখন ফটোগ্রাফি রিলেটেড কনটেন্ট বাদ দিয়ে কোন রকমের ব্লগার কিংবা অন্য নিস রিলেটেড ভিডিও কনটেন্ট আপলোড দিবেন তখন তারা বিভ্রান্ত হয়ে আপনার চ্যানেল আনসাবস্ক্রাইব করতে বাধ্য হবে।


আর কিভাবে আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেলের সুন্দর নাম নির্বাচন করতে পারেন এবং কি নাম দিলে সবচেয়ে ভালো হয় এটা জেনে আসুন নিচের পোস্টটি থেকে।



আপনার পছন্দের ইউটিউব চ্যানেলের নাম নির্বাচন করা হয়ে গেলে এবার এটিকে যথাযথভাবে নিচের দেয়া বক্সে বসিয়ে দিন, তারপরে তাদের পলিসি গুলোর সাথে একমত পোষণ করে তারপরে create বাটনে ক্লিক করুন।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)



যখনই আপনি ক্রিয়েট বাটন এর উপরে ক্লিক করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই আপনার ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করে নিতে হবে, আট চ্যানেল ভেরিফাই করতে হলে আপনাকে অবশ্যই আপনার অ্যাক্টিভেট ফোন নাম্বার দিতে হবে।


একটিভেট ফোন নাম্বার দেয়ার কারণ হলো যখন আপনি ওই নাম্বারটি এখানে দিবেন তখন আপনার সিমে একটি ভেরিফিকেশন কোড যাবে যা আপনাকে বক্সটিতে দিয়ে ভেরিফাই করে নিতে হবে।


তাই অ্যাক্টিভেটেড নাম্বার দিন এবং তারপরে আপনার ইউটিউব চ্যানেল ভেরিফাই করে নিন।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)

যখনই আপনি আপনার নাম্বার ভেরিফাই করে নিবেন তখন আপনি দেখতে পারবেন আপনার চ্যানেল তৈরি করা হয়ে গেছে, এবার আপনাকে আপনার চ্যানেলের জন্য একটি প্রোফাইল পিকচার নির্বাচন করতে হবে।


আপনি যদি ফটোশপের ভালো কাজ না জানেন তাহলে আপনি চাইলে বিভিন্ন ধরনের অনলাইনে থাকা ফ্রী টুলস এর সহযোগিতায় প্রোফাইল পিকচার এবং আপনার চ্যানেলের কভার আর্ট পিকচার তৈরি করে নিতে পারেন।


প্রোফাইল পিকচার যেহেতু আপনি তৈরি করবেন তাই প্রোফাইল পিকচারের যে বাটন রয়েছে তাতে ক্লিক করুন এবং তারপর এটি কিভাবে যুক্ত করবেন এবং কিভাবে তৈরি করবেন তা দেখে নিন পরবর্তী স্টেপে।

আপনাকে এবার একটি ইউটিউব চ্যানেল উপযোগী লোগো তৈরি করে নিতে হবে, লোগো তৈরি করতে হলে আপনাকে অবশ্যই একটি ফ্রী টুলস এর সহযোগিতা নিতে হবে যার লিঙ্ক আমি নিচে দিয়ে দিচ্ছি।

Free Logo Maker


যখনই আপনি উপযুক্ত লিংকে ভিজিট করবেন তখন আপনি একটি সম্পূর্ণ পেইজ দেখতে পারবেন সেখানে আপনি পূর্বে থেকে তৈরি করা লোগো পরিলক্ষিত করবেন।


আপনি যদি চান এই টুলসটি পেইড ভার্সন ব্যবহার করে তাহলে আপনি পারবেন অথবা আপনি দিছেন এখানে থাকা ফ্রী লোগো ডাউনলোড করে আপনার ফোনে রেখে তাহলে আপনি পারবেন।


আপনি যেহেতু পেইড ভার্সন ব্যবহার করবেন না সেক্ষেত্রে এখানে এভেইলেবল ফ্রী লোগো রয়েছে এগুলো ব্যবহার করে নিতে পারেন, এবং আপনি যাতে এটি বুঝতে পারেন যে কোনটি আসলে প্রিয় জন্য প্রত্যেকটি ফ্রী লোগো এর নিচে ফ্রী লেখা পাবেন।


আপনি এই ফ্রী লোগো গুলো পূর্বে থেকে তৈরি করা দেখবেন আপনাকে ব্যবহার করতে হলে শুধুমাত্র এতে ক্লিক করতে হবে এবং তারপরে এটিকে কিছুটা কাস্টমাইজ করে আপনার ফোনে সেভ করে নিতে হবে।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)

মেক সিওর আপনি ফ্রি ভাবে ব্যবহার করবেন যদি ফ্রি ট্রায়াল’ এ থাকেন, এবং তারপরে শুধুমাত্র নাম আর কালার পরিবর্তন করে এগুলো আপনার ফোনে সেভ করে নিবেন।


যখনই আপনি লোগো তৈরি করে নিবেন তখন আপনাকে আবার ওই পূর্বের পেইজে ভিজিট করতে হবে এবং তারপরে আপনার লোগোটি যথাযথভাবে লাগিয়ে নিতে হবে।


লোগো তৈরি করা সম্পন্ন হয়ে গেলে এবং এটি আপলোড করা হয়ে গেলে আপনাকে এবার পেইজটিকে একটু নিচের দিকে স্ক্রল করতে হবে, তাহলে এখানে আপনার চ্যানেলের সমস্ত ইনফরমেশন গুলো দিয়ে এটিকে পুরোপুরি ভাবে তৈরি করে নিতে পারবেন।




Tell viewers about your channel: এখানে অবশ্যই আপনার চেনেলের এবাউট ডিসক্রাইব করতে হবে যাতে করে যেকোনো নতুন ভিজিটর বুঝতে পারে আপনার চ্যানেল আসলে কি রিলেটেড।


এবং আপনি এখানে কি রকমের ভিডিও আপলোড দিয়ে থাকেন, আপনার চ্যানেলের এবাউট আপনি যদি ইংরেজিতে লিখেন তাহলে সর্বাপেক্ষা উত্তম হয়, তবে আপনি কি বাংলা লিখতে পারেন।


একটি ভালো ডেসক্রিপশনে লেখার আপনি চাইলে নিচের দেয়া ফরম্যাট ব্যবহার করতে পারেন:


” এই চ্যানেলটি মূলত ( আপনার নিস) ক্যাটাগরি রিলেটেড ভিডিও আপলোড এর জন্য তৈরি করা হয়েছে, যেখানে আপনি (আপনার নিস) রিলেটেড সম্পূর্ণ জ্ঞান পাবেন, এবং আপনি পুরোপুরি একজন মাস্টার মাইন্ডে পরিণত হবে”


আমরা প্রতিদিন এই চ্যানেলে নতুন ভিডিও আপলোড করি এবং ভিজিটর আমাদের চ্যানেলে পুরোপুরি সন্তুষ্ট, আপনি যদি নিত্য নতুন টিপস এন্ড ট্রিকস সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের চ্যানেলটি অবশ্যই সাবস্ক্রাইব করুন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন”


আপনাকে আমাদের চ্যানেলে স্বাগতম”

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)

 

আর আপনি এভাবে একটি সুন্দর করে আপনার চ্যানেলের ডেসক্রিপশন লিখে দিতে পারেন, ডেসক্রিপশন লেখা হয়ে গেলে এবার আপনাকে আপনার চেনেলের যে সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ লিংক রয়েছে সেগুলো যুক্ত করে নিতে হবে।


Custom link : আপনার যদি কোন ওয়েবসাইট থাকে এবং আপনি যদি এই ওয়েবসাইটের জন্য একটি ডুফলো ব্যাকলিংক তৈরী করতে চান তাহলে এখানে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক দিয়ে দিন।


এতে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি ডুফলো ব্যাকলিংক তৈরী হবে হাই ডোমেইনে রেটিং ওয়েবসাইটের সাথে, যা আপনার সার্চ রেংকিং এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন।


এছাড়া আপনি চাইলে নিচের বক্স  গুলোতে আপনার যে সমস্ত সোশ্যাল একটিভিটি রয়েছে সে সমস্ত শেয়ার ওয়েবসাইট এর প্রোফাইল যুক্ত করে নিতে পারেন। 


যাতে করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার অন্যান্য সোসিয়াল গণমাধ্যমের মাধ্যমে আপনার সাথে সংযুক্ত হতে পারে, যখনই আপনি সমস্ত লিংকগুলো যুক্ত করে নিবেন তখন আপনাকে SAVE AND CONTINUE এই অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে।

ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করবেন? (সম্পূর্ণ গাইডলাইন)





যখনই আপনি উপরোক্ত সেটিং গুলো যথাযথভাবে করে নিবেন তখন আপনি দেখতে পারবেন যে আপনার ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করা হয়ে গেছে।

ইউটিউব চ্যানেল আর্ট তৈরীঃ 



এবার আপনাকেও ইউটিউব চ্যানেলকে আরও বেশি আকর্ষণীয় করতে হলে একটি কভার চ্যানেল আর্ট তৈরি করে নিতে হবে, আপনি যদি ডিজাইন করেন তাহলে ইউটিউব চ্যানেল art তৈরি করা অনেক সময় সাপেক্ষ।


আমি যদি পুর্বের দেয়া লোগো ডিজাইনের মত একটি অসম্ভব সুন্দর ইউটিউব চ্যানেল art তৈরি করতে চান তাহলে নিচের দেওয়া লিংকে ভিজিট করুন।

Free YouTube Channel Art Maker



যখন আপনি উপরোক্ত লিংকে ভিজিট করবেন তখন আপনি এখানে অনেকগুলো ফ্রি ইউটিউব চ্যানেল কভার আর্ট পেয়ে যাবেন, যেগুলো আপনাকে শুধুমাত্র কিছু পরিবর্তনের মাধ্যমে ব্যবহার করতে হবে।


আর তারপরে এটিকে সেইভ করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের যে কভার   ফটো রয়েছে সেই স্থানে যথাযথভাবে বসিয়ে দিন কোন রকমে রেসাইজ বা এডিট করা ছাড়া।


তাহলে আপনি দেখতে পারবেন আপনার ইউটিউব চ্যানেল পুরোপুরি আকর্ষণীয় দেখাচ্ছে এবং এটি পুরোপুরি ব্যবহার উপযোগী এবং আপনার চ্যানেল টি সাবস্ক্রাইব পাওয়ার জন্য উপযুক্ত।


আর এভাবেই মূলত আপনি চাইলে খুব সহজেই একটি আকর্ষণীয় ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে পারেন একদম ফ্রিতে।


ইউটিউব চ্যানেল কিভাবে তৈরি করতে হয় সে সম্পর্কে আপনি হয়তো জেনে নিতে পেরেছেন, এবার আপনাকেও ইউটিউব চ্যানেলে আকর্ষণীয় এবং ইউনিক ভিডিও আপলোড দিয়ে তারপর আয় করা শুরু করে দিতে হবে।


অসংখ্য শুভকামনা আপনার জন্য!

Leave a Comment

1 + six =