বাংলাদেশ অনলাইন শপিং|অনলাইনে কেনাকাটার ওয়েবসাইট

 

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে প্রায় অনেকটাই ইন্টারনেটনির্ভর হয়েছে। 
 
অর্থাৎ বাংলাদেশে বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের কার্যকলাপ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সম্পাদন করতে গ্রাহককে উদ্ভুদ্ধ করছে।
 
বিষয়টা এরকম যে আপনি পূর্বে যখন আপনার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করতেন, তখন বাধ্যতামূলকভাবে আপনাকে মার্কেটে গিয়ে সময় এবং থাকা দুটি এক্সট্রা খরচ করার মাধ্যমে তা নিজের আয়ত্বে নিয়ে আনতে হতো কিন্তু বর্তমান সময়ে এটা মোটেও হচ্ছে না।
 
অর্থাৎ বর্তমান সময় আপনি চাইলে বাংলাদেশের বিভিন্ন ধরনের ই কমার্স প্রতিষ্ঠানের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়ে ঘরে বসেই অনলাইন শপিং করতে পারবেন, আর এক্ষেত্রে আপনার সময় এবং টাকা দুটি অপচয় রোধ হবে।
 

অনলাইন শপিং কি?

 
অনলাইন শপিং হল মূলত সেই শপিং ব্যবস্থা যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসেই আপনার নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য গুলো আপনার কাছে নিয়ে আসতে পারেন।
 
অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনি বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর সহযোগিতায় ঘরে বসেই আপনার নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য গুলো নিজের কাছে নিয়ে আসতে পারেন।
 
শুধু তারা নয় আপনি যদি অনলাইন শপিং এর মাধ্যমে আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো ক্রয় করেন, তাহলে আপনি নানা সময় অনেক বড় অংকের ডিসকাউন্ট এর সাথে পণ্যগুলো ক্রয় করতে পারবেন।
 
এছাড়াও আপনি বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো সহযোগিতায় আপনার প্রোডাক্ট গুলো একদম সুলভ মূল্যে ক্রয় করা ছাড়াও একটি প্রোডাক্ট ক্রয় করলে আরেকটি প্রোডাক্ট একদম বিনামূল্যে পাওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়।
 
তাছাড়াও বাংলাদেশ এরকম অনেক অনলাইন শপিং সেন্টার রয়েছে যেগুলো আপনাকে খুবই কম মূল্যে এবং ডেলিভারি চার্জ এর ক্ষেত্রে খুব কম মূল্য পরিশোধ করার মাধ্যমে আপনার পন্য আপনার কাছে পৌঁছে দেবে।
 

বাংলাদেশ অনলাইন শপিং এর সুবিধাঃ

 
আপনি যদি মার্কেটে গিয়ে এমন তেমন একটি ভালো অনুভব না করেন, অর্থাৎ আপনি যদি মার্কেটে যাওয়ার পরে যেকোনো জায়গায় নতুন হন এবং আপনার কাছ থেকে তারা হয়তো তখন এক্সট্রা টাকা নিতে পারে।
 
বিষয়টা এরকম অনেক জায়গায় আপনি 
যেকোনো ধরনের একটি প্রোডাক্ট কিনতে আপনার বেশি টাকা খরচ হতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি বাধ্যতামূলক ওই প্রোডাক্ট কম টাকার হওয়া সত্ত্বেও তা বেশি টাকার বিনিময় করতে হয়।
 
তবে আপনি যদি বাংলাদেশ অনলাইন শপিং যে সমস্ত সেন্টারগুলো রয়েছে সেগুলো সাহায্য নেন তাহলে আপনি আপনার পছন্দের প্রোডাক্ট এর সঠিক মূল্য অন্যান্য যে সমস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে সে সমস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে সেই ওয়েবসাইটগুলো সহযোগিতায় জেনে নিতে পারবেন।
 
এতে করে যেকোনো ধরনের বাংলাদেশের অনলাইন শপিং সেন্টার আপনার কাছ থেকে বেশি টাকা নেয়া থেকে কম হলেও 100 হাত দূরে অবস্থান করবে। 
 
কারণ আপনি তখন ওই প্রোডাক্টের সঠিক দাম পূর্ব থেকে জেনে নিতে পারবেন।
 
এক্ষেত্রে বাংলাদেশের অনলাইন শপিং সেন্টার যেগুলো রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম কয়েকটি শপিং সেন্টারের সহযোগিতা আপনি চাইলে নিতে পারেন যার লিংক আমি নিচে দিয়ে দিচ্ছি।
 
 
এই সমস্ত অনলাইন কেনাকাটার ওয়েবসাইট  গুলোর মধ্যে যে কোনো একটিতে প্রবেশ করার পরে যখনই আপনি আপনার পছন্দের প্রোডাক্ট এর নাম লিখে সার্চ করবেন তখনই আপনি তা পেয়ে যাবেন। 
 
এবং এর পরে আপনি এই সাইটে রেজিষ্ট্রেশন করে যখন নতুন একটি একাউন্ট খুলে ফেলবেন, তখন আপনি এর সহযোগিতায় ক্যাশ অন ডেলিভারি অথবা প্রথমে টাকা প্রদানের মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্ট আপনার কাছে নিয়ে আসতে পারবেন।
 
বাংলাদেশ অনলাইন শপিং | অনলাইনে কেনাকাটার ওয়েবসাইট |
আপনি যখন আপনার পছন্দের শপিংয়ের জিনিসটি আপনার চ্যার্টে যোগ করে নিবেন, তখন আপনি কয়েক দিন অথবা কয়েক ঘণ্টার মধ্যে এটা আপনার নিজের কাছে নিয়ে আসতে পারবেন।
 
উপরে উল্লেখিত যে সমস্ত ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর লিঙ্ক আমি দিয়েছি সেই ওয়েবসাইটগুলো থেকে বাংলাদেশে বসেই আপনি খুব সহজে অনলাইন শপিং পরিচালনা করতে পারবেন।
 
অথবা আপনার যদি কোন প্রিয় জন থাকে এবং আপনি যদি ঘরে বসে আর মাধ্যমে তাকে গিফট করতে চান এবং তার বাড়ি অব্দি এই শপিং এর জিনিসটি পৌঁছে দিতে চান তাহলে আপনি বাংলাদেশের অনলাইন শপিং যে সমস্ত সাইট গুলো রয়েছে সেগুলো সহযোগিতা নিতে পারেন।
 
এক্ষেত্রে আপনি যখনই আপনার পছন্দের প্রোডাক্ট বেছে নিবেন, তখন আপনি তাদেরকে আপনার লোকেশন এর এড্রেস দিতে হবে। 
 
তারপরে আপনি যদি প্রেমেন্ট করে দেন অথবা আপনি এটা চার্জ ক্যাশ অন ডেলিভারির মাধ্যমে এটা আপনার কাছে তারা পৌঁছে দেয় তাহলে আপনি সেটা পারবেন।
 
মোটকথা হলোঃ এটা যে আপনি বাংলাদেশের অনলাইন শপিং সেন্টার গুলো সহযোগিতায় ঘরে বসেই আপনার পছন্দের জিনিসপত্র আপনার নিজের আয়ত্তে নিয়ে আসতে পারবেন এতে আপনার সময় এবং খরচ দুটি কম লাগবে।

অনলাইনে খাবার অর্ডার:

আপনি যদি অনলাইনে মাধ্যমে ঘরে বসে আপনার প্রয়োজনীয় খাবার আপনার হাতে পেয়ে যেতে চান, তাহলে আপনি চাইলে অনলাইনের বিভিন্ন ওয়েবসাইটে সহযোগিতা নিতে পারেন।

আর অনলাইনে ঘরে বসে আপনি আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় সমস্ত খাবার আবার হাতে পাওয়ার জন্য, একটি অসাধারণ প্ল্যাটফর্ম আপনার জন্য অপেক্ষারত।

বই কেনার অনলাইন শপ:

আপনি যদি ঘরে বসে আপনার পছন্দের প্রিয় বইটি ক্রয় করতে চান তাহলে আপনি চাইলে ইন্টারনেটের সহযোগিতা করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় যে বই কেনাবেচার যে ওয়েবসাইট রয়েছে তার সহযোগিতা নিতে পারেন, আপনি চাইলে এই ওয়েবসাইট থেকে Home ডেলিভারি নিতে পারেন।

অনলাইনে কেনাকাটার জন্য যে ওয়েবসাইটগুলো সবার কাছে খুবই পরিচিত এবং যেখান থেকে আপনি আপনার পছন্দের বইটি পাবেন তার লিংক নিচে দেয়া হল।

অনলাইনে ইলেকট্রনিক পণ্য ক্রয়:

আপনি যদি ইলেকট্রনিক প্রেমিক হন এবং অনলাইনের মাধ্যমে আপনি যদি তা ক্রয় করতে চান তা অল্প টাকার বিনিময় তাহলে আপনি সেই কাজটি করতে পারেন।

আপনি অনলাইনের মাধ্যমে ইলেকট্রনিক পণ্য ক্রয় করলে বিশাল পরিমাণ এর ডিসকাউন্ট পাবেন, তাছাড়া আপনি সবচেয়ে ভালো যে পন্যটি সে পণ্য আপনার কাছে নিয়ে আসতে পারবেন।

তাছাড়া আপনি যদি নিরাপদে অনলাইন শপিং করতে চান তাহলে আপনি উপরোক্ত ওয়েবসাইটগুলো সহযোগিতা নিতে পারেন, এগুলো আপনার নিরাপদ অনলাইন শপিং নিশ্চিত করবে।

বাংলাদেশ অনলাইন মার্কেটঃ
আপনি চাইলে নিচের দেয়া আরো কয়কটি জনপ্রিয়  অনলাইন শপিং নাম এর সহযোগিতায়  আপনি সহজেই অনলাইনে পন্য ক্রয় করতে পারবেন।
তাহলে আর দেরী না করে এখনি দেখে নিন অনলাইনে বড় শপিং মল গুলো। এবং এখান থেকে আপনার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করুন আরো সহজে।

OnTheWay247: এই প্লার্টফর্ম মেয়েদের অনলাইন শপিং এর জন্য।

এখনি উপরে উল্লেখিত পন্থা ব্যবহার করার মাধ্যমে বাংলাদেশের অনলাইন শপিং সেন্টার বা অনলাইনে মার্কেট গুলোর সহযোগিতা নিয়ে ঘরে বসেই কেনাকাটা করুন।
 
এছাড়াও যেহেতু আপনি  ক্যাশ অন ডেলিভারি মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্ট নিজের কাছে নিয়ে আসতে পারবেন সেখানে দুশ্চিন্তা করার কোন কারণ নেই।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 4 =

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap