যেকারণে ফেসবুক বন্ধ সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগতে পারেন?

আপনি যখনই যে কোন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই ওই প্ল্যাটফর্মের দেয়ার কিছু বাধ্যবাধকতা মানতে হয়।

যার মানে হল এই প্ল্যাটফর্মটি আপনি যদি ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনি তাদের দেয়া কিছু নিয়ম অবশ্যই পালন করতে হয়। নয়তো কর্তৃপক্ষ বাধ্য হয় আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিতে পারে।

কারণ সবকিছুই ব্যবহারের একটা লিমিট রয়েছে যে লিমিট আপনি একজন ব্যবহারকারী হয়ে কখনোই করতে পারবেন না, অর্থাৎ টিকে থাকতে হলে আপনাকে নিয়ম অবশ্যই পালন করতে হবে।

ঠিক এরকমই ভাবে ফেসবুকের কিছু করার নিয়ম রয়েছে, যে নিয়ম গুলো অবশ্যই আপনাকে পালন করতে হয় যদি আপনি এখানে টিকে থাকতে চান।

অন্যথায় যে কোন সময় আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। কি সেই নিয়মগুলো যার কারণে ফেসবুক বন্ধ হয়ে যেতে পারে?

প্রোফাইল কমপ্লিট

ফেসবুকে আপনি যখনই নতুন একটি একাউন্ট খুলবেন তখন আপনি আপনার নিজস্ব আওতাধীন একটি প্রোফাইল পান, যেখানে আপনি আপনার মনের ভাব আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনার অবশ্যপালনীয় কয়েকটি বিষয় রয়েছে যা ফেসবুক এর কাছ থেকে নির্বাচন করা হয়েছে।

অবশ্য পালনীয় বিষয় গুলোর মধ্যে একটি হলো আপনার প্রোফাইল পুরোপুরি কমপ্লিট করতে হবে। প্রোফাইল কমপ্লিট করার ক্ষেত্রে আপনি আপনার প্রোফাইলের সমস্ত ডিটেলস গুলো দিতে হবে।

যেমন: একটি ভালো স্পষ্ট প্রোফাইল পিকচার, কভার ফটো, আপনার জব ডিটেইলস, হোম এড্রেস সহ আরো অনেক। এগুলো অবশ্যই আপনাকে সঠিক তথ্য দিয়ে পরিপূর্ণ করতে হবে।

এছাড়া আপনি অপেরা মিনি কিংবা অন্য কোন ব্রাউজার দিয়ে ফেসবুক আইডি ব্যবহার করলে আপনি যখন আপনার ফেসবুক প্রোফাইল ভিজিট করবেন তখন দেখতে পারবেন এটি কত পার্সেন্ট কমপ্লিট হয়েছে।

এই কারণে ফেসবুক বন্ধ সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগতে পারেন আপনিও?





এই প্রোফাইল কমপ্লিট এর হার অবশ্যই আপনাকে শতভাগ করতে হবে। হয়তো আপনার কারণে ফেসবুক একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

পর্নোগ্রাফি



আপনি যদি আপনার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে বিভিন্ন ধরনের বাজে স্ট্যাটাস দ্বারা পূর্ণ করে দেন যেগুলো পর্নোগ্রাফি রিলেটেড তাহলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিবে।

কারণ ফেসবুক কখনো এসব খারাপ অশ্লীল পর্নোগ্রাফিক এলাও করে না, এটি ততক্ষণ পর্যন্ত ফেসবুকে দেখাবে যতক্ষণ না এর সম্পর্কে কেউ তাদের কাছে রিপোর্ট করবে।

যখনই আপনার এই অশ্লীল পর্নোগ্রাফি যেকোনো ব্যবহারকারীর বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে এবং ফেসবুকের সিকিউরিটি টিমের কাছে তা সাবমিট করবে তখনই এগুলো আপনার বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

এক্ষেত্রে প্রথমে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আংশিক কিছুদিনের জন্য বন্ধ করে দিবে, অথবা নানা ধরনের ফিচারস ব্লক করে দিবে।

আপনি যখন তাদেরকে এই সতর্কবাণী এড়িয়ে আবারো কোন পর্নোগ্রাফি ফেসবুকে আপলোড দিবেন তখনই তারা আপনার একাউন্ট পার্মনেন্টলি বন্ধ করে দিবে।

তাই অবশ্যই আপনাকে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ঠিক রাখতে হলে সমস্ত খারাপ পাপাচার থেকে কয়েক শত হাত দূরে থাকুন।

সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ড



আপনি যদি ফেসবুক ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী মূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করেন যেমন ড্রাগস-এর ব্যবসা ইত্যাদি তাহলে আপনার ফেসবুক বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

শুধু যে এর কারণে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে তা কিন্তু নয়, এটি আপনার ব্যক্তিজীবনে ভয়াবহ হুমকি নিয়ে আসতে পারে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ যখন কয়েকবার আপনার কাছ থেকে এরকম অস্বাভাবিক আচরণ লক্ষ করবে তখন তারা এগুলো আপনার লোকেশন এ থাকা প্রশাসনকে জানিয়ে দিতে পারবে।

এক্ষেত্রে যদি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কোনো ধরনের ধরনের স্টেপ নাও নেয় তাহলেও ফেসবুকে নানা ক্যাটাগরির প্রশাসনের লোকেরা বিরাজমান করে প্রতিনিয়ত। যাদের হাত থেকে বেঁচে থাকা প্রায় অসম্ভব।

যখনই আপনি তাদের নজরদারির মধ্যে পড়বেন তখনই তারা আপনার লোকেশন খুজে বের করে আপনাকে এরেস্ট করতে বাধ্য হবে। এতে আপনার কয়েক মেয়াদে সাজা হতে পারে।

তাই এই সমস্ত জটিলতায় বুকার আগে অবশ্যই এগুলো থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে ফেলুন। কখনোই ফেইসবুক ব্যবহার করবেন না সন্ত্রাসীমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য।

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত



আপনি যদি অন্য কোন ধর্মকে টার্গেট করে ফেসবুকে এরকম কিছু প্রচার করেন যা ওই ধর্মের লোকের পক্ষে রাগের কারণ হয়ে দাঁড়ায় তাহলে কিন্তু এটি আপনার বিপদ ডেকে আনবে।

আপনি কোন ধর্মকে ছোট করে দেখতে পারবেন না, অন্য ধর্মের বিষয়ে আমি বলতে পারিনা তবে ইসলাম ধর্মে এটা কখনোই সমর্থন করেনা।

ইসলাম ধর্মের মধ্যে সব ধর্মের লোককে শ্রদ্ধা করা উচিত, তাদের টার্গেট করে কোন অশ্লীল কুরুচিপূর্ণ মতবাদ করা কখনও ইসলাম সমর্থন করে না।

তাছাড়াও আপনি ধর্ম নিয়ে কখনো বাড়াবাড়ি করবেন না এটা ইসলামে স্পষ্ট রয়েছে। তবু আপনি এসব বিধি-নিষেধ যদি ভেঙ্গে ও কোন ধর্মের অনুভূতিতে আঘাত করেন তাহলে এটি আপনার জন্য ভয়ঙ্কর বিপদ ডেকে আনতে পারে।

এক্ষেত্রে যখন যে কেউ আপনার ওই ফেসবুক আইডিতে রিপোর্ট করবে তখন এটি সরাসরি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ রিভিউ করবে, আর যদি সব কিছু ঠিক থাকে তাহলে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিবে।

শুধু যে এক্ষেত্রে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ধরনের পদক্ষেপ নিবে তা কিন্তু নয়, এক্ষেত্রে আপনি যে দেশের ভুক্তভোগী হন না কেন সেই দেশের সরকার আপনার বিপক্ষে দাঁড়াবে এবং এটি আপনার জন্য ভয়াবহ হতে পারে।

তাই  ব্যক্তিস্বার্থে এবং আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রক্ষার্থে অবশ্যই ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে এ সমস্ত কথাগুলো থেকে বিরত থাকবেন। যা আপনার জন্য অবশ্যই শোভনীয়।

ভিডিও



আপনি কি এটা জানেন যে ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে? তবে সকল ভিডিও আপলোডের ক্ষেত্রে এটা কাম্য নয়।

এক্ষেত্রে কিছু সংখ্যক ভিডিও যেমন নির্যাতনের দৃশ্য , ধর্ষণের দৃশ্য, সহ আরো অনেক ধরনের আপত্তিকর মুহূর্তের ভিডিও আপনার ফেসবুক একাউন্ট বন্ধ করার জন্য যথেষ্ট।

তাই অবশ্যই ফেসবুকে কোন কিছু আপলোড দেওয়ার ক্ষেত্রে উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন আপনার ফেসবুক একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × five =

Scroll to Top
Share via
Copy link
Powered by Social Snap