অনলাইনে আয় করার চিন্তাভাবনা মাথায় ঘুরছে?

Advertisements

বর্তমান সময় হল প্রযুক্তির যুগ, আর আমাদের অবসর সময়ে কিংবা গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলোতে আমরা জড়িয়ে যাই ইন্টারনেট নামক এক মায়া জগতে।

ইন্টারনেটের সাথে আপনি যখনই সংযুক্ত হয়ে যাবেন তখন আপনার ইচ্ছাই করবে না এখান থেকে মুক্তি পেতে, মোটকথা প্রতিনিয়ত  রহস্য ঘেরা ইন্টারনেটের জগতে আপনাকে মনে হবে  তুচ্ছ এক অস্তিত্ব মাত্র।

কারণ যখন আপনি ইন্টারনেটের জগতে বিচরণ করবেন তখন আপনার মনের মধ্যে জেগে যাবে অদম্য কৌতূহল গুলো, আপনি চাইবেন নতুন কিছু জানতে।

আর যখনই আপনার মনের ভিতর নতুন কিছু জানার কৌতুহল জন্মাবে তখনই আপনি একেক সময়ে  রিডাইরেক্ট করবেন একেক রকমের ওয়েবসাইটের জগতে।

আচ্ছা আপনি যে অন্যের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর তাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী যাবতীয় বিষয়াদি শিখছেন, এটা কি ওই ব্যক্তি আপনাকে বিনামূল্যে শিখাচ্ছে?

এরকম প্রশ্ন কি আপনার মনের মধ্যে কখনো জেগেছে যে তারা কি আপনাকে বিনামূল্যে সবকিছু একেবারে আপনার নিজের করে দিয়ে দিচ্ছে?

এতে করে কি ওয়েবসাইট কর্তৃপক্ষের অনলাইন থেকে আয় করা হচ্ছে না? কি প্রশ্ন জেগেছে তো আপনার মনে?

তারা কিভাবে আপনাকে ব্যবহার করে অনলাইন থেকে আয় করছে? এবং আপনিও চাইলে কিভাবে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন? সেগুলো জানতে হলে আজকের এই পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন।

আজকের এই পোস্টটিতে আমি আলোচনা করব কয়েকটি পদ্ধতি সম্পর্কে যার মাধ্যমে আপনি অনলাইনে আয় করতে সক্ষম হবেন।

Advertisements

ব্লগার/ওয়েবসাইট-

আপনি চাইলে ফ্রীতে একটি ব্লগ সাইট তৈরি করে এখান থেকে সারা জীবন আয় করতে সক্ষম হবেন, এতে আপনার কোন টাকা খরচ হবে না।

আর ফ্রিতে ব্লগ সাইট তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনাকে সহজ একটি পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে, যার মাধ্যমে আপনি ব্লগ সাইট তৈরি করে আয় করতে পারবেন।

▪ প্রথমে আপনাকে blogger.com এই অ্যাড্রেসে ভিজিট করে তারপর ফ্রিতে একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে হবে।

▪ এবার আপনাকে  ব্লগ সাইটের নাম এবং ডোমেইন অ্যাড্রেস সবকিছু ভালোভাবে কাস্টমাইজ করতে হবে।

▪ এখন আপনাকে কয়েকটি টপিকের উপর সাত-আটটি ইউনিক আর্টিকেল লিখতে হবে। তবে একটি বিষয় লক্ষ্য রাখবেন যে আর্টিকেল লিখেন না কেন এগুলো যেন আপনার একান্তই হয়।

এক্ষেত্রে আপনি যদি অন্য কারো ওয়েবসাইট থেকে আর্টিকেলগুলো কপি করে এনে আপনার ওয়েবসাইটে পাবলিশ করে দেন তাহলে এটা কখনোই সার্থক হবে না।

▪ যখনই আপনি এটা নিশ্চিত হয়ে যাবেন যে আপনি সাত-আটটি কিংবা তার অধিক আর্টিকেল লিখে ফেলেছেন এবং এগুলো আপনি কভার করেছেন, তখনই আপনার মনের মধ্যে আয় করার চিন্তাটি পুষে ফেলুন।

কারণ এ বার আপনি আয় করতে চলেছেন। কিভাবে আয় করবেন এটা জেনে নিন।

▪আপনাকে google adsense এ আপনার ওয়েবসাইটটি সংযুক্ত করতে হবে এবং তাদের কাছে আপনার ওয়েবসাইট রিভিউ করার জন্য পাঠাতে হবে।

যখনই সব কিছু ঠিক থাকবে তখন তারা আপনার ওয়েবসাইটটি এপ্রুভ করবে তখন আপনার ওয়েবসাইটে অ্যাড দেখানো শুরু হবে।

আর যখনই অ্যাড দেখানো শুরু হয়ে যাবে তখনি আপনার ওয়েব সাইটের যে কোন ভিজিটর যখনই ভিজিট করবে তখন এডসেন্সের এড এ ক্লিক করলেই আপনার আয় হিসেবে গণ্য হবে।

ফ্রিল্যান্সিং

আপনি আপনার অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে খুটি-নাটি কিছু কাজ করার মাধ্যমে অনলাইনে খুব সহজে আয় করতে পারেন।

আর অনলাইনে আয় করার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদ্ধতির মধ্যে জনপ্রিয় একটি হলো ফ্রিল্যান্সিং, আপনি ফ্রীল্যান্সিং করে অনলাইনে আয় করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে প্রথমে আপনাকে কিছু ট্রাস্টেড এজেন্সি থেকে ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে পুরোপুরি ধারণা গ্রহণ করতে হবে। আর যখনই আপনি পুরোপুরি ফ্রিল্যান্সার হয়ে যাবেন তখনই আপনি অনলাইনে আয় করার উপযুক্ত হয়ে যাবেন।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট/ ওয়েব ডিজাইন

আপনার যদি কোডিং সম্পর্কে খুব বেশি ধারণা থাকে তাহলে আপনি অন্যদের ওয়েবসাইট তৈরি করতে সহযোগিতার মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

তবে এক্ষেত্রে লক্ষণীয় বিষয় হলো অবশ্যই আপনাকে এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভাস্ক্রিপ্ট এসমস্ত কোডিং গুলো সম্পর্কে পুরোপুরি ধারণা থাকতে হবে।


এবং আপনি যখন একজন পরিপূর্ণ ওয়েব ডেভলপার হয়ে যাবেন তখনই আপনি চাইলে অন্যদের ওয়েবসাইট তৈরি করতে সাহায্য করতে পারেন।

এক্ষেত্রে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে একটি কোম্পানি তৈরি করতে পারেন এবং এখানে চিপ রেটে অন্যান্যদের ওয়েবসাইট তৈরি করতে সহযোগিতা করে অনলাইনে আয় করতে পারেন।

মার্কেটিং

আপনি চাইলে ইন্টারনেট কে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের মার্কেটিং সেবা যেমন- অনলাইন মার্কেটিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ইত্যাদি করে অনলাইনে আয় করতে পারেন।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে এবং ওয়েবসাইট থেকে ভালোভাবে রেঙ্ক করানোর পর একটি এজেন্সি খুলতে হবে।

মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে যখন আপনি একেবারে বিগিনার হবেন তখন আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং কে গুরুত্ব দেন তাহলে এটি আপনার জন্য সর্বাপেক্ষা বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং সর্বাপেক্ষা সহজ কাজ, আপনি অন্যান্য বড় বড় কোম্পানির প্রোডাক্ট গুলো কে প্রচার করার মাধ্যমে একটি ভালো কমিশন পাবেন।

তবে এর জন্য আপনাকে অবশ্যই অনলাইনে একটি নিজের জায়গা তৈরি করতে হবে, বিষয়টা এরকম যে সবাই আপনাকে চিনবে এবং আপনাকে বিশ্বাস করবে।

শুধু উপরে উল্লেখিত কয়েকটি সীমাবদ্ধ উপায়ে আপনি যে অনলাইনে আয় করতে পারবেন তা কিন্তু নয়। আপনি অনলাইনে বিচরণ করে দেখুন কয়েক হাজার আয় করার রাস্তা আপনার জন্য অটোমেটিকলি খুলে যাবে।

তবে আপনি যখন অনলাইনে জগতে একদম নতুন হবে তখন উপরে দেয়া একটি কার্যকরী উপায় অনলাইন কে ব্যবহার করতে পারেন আপনার আয় করার একমাত্র হাতিয়ার হিসেবে।

2 thoughts on “অনলাইনে আয় করার চিন্তাভাবনা মাথায় ঘুরছে?”

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen + twelve =

close
Scroll to Top
Share via
Copy link