কষ্টের sms, kster sms, কান্নার sms, বিরহের sms

এখনই আপনার মনের মধ্যে কষ্ট জমা হয়ে থাকে এবং তা আপনি মুখ ফুটে বলতে পারেন না তখনই গুলোকে আপনি আপনার লেখার মাধ্যমে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেন।কষ্টের sms, kster sms, কান্নার sms, বিরহের sms এর মাধ্যমে

তবে আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যাদের এখানে কি সম্পর্কে খুব ভালো একটি অভিজ্ঞতা না থাকার পরেও ভালোভাবে কিছু লেখার চেষ্টা করে।

এমনভাবে তাদের আবেগপূর্ণ কথাগুলো কে ফুটিয়ে তুলতে চায় যাতে করে যে কেউ তাদের মনের মধ্যে লুকিয়ে থাকা কষ্টগুলো অনুভব করতে পারে।

তবে যখনই আপনি স্ট্যাটাস লিখতে চাইবেন তখনি নানান কথার ছড়াছড়ি কারণে আপনার মূল কথাগুলো কে আপনি ভালভাবে ব্যক্ত করতে পারবেন না।

আর আপনি হয়তো খুব সুন্দর কষ্টের sms, kster sms, কান্নার sms, বিরহের sms খুঁজতে খুঁজতে আজকের এই পোস্ট অবধি পৌঁছে গেছেন।

আজকের এই পোস্টটিতে আমি আলোচনা করব সমস্ত ধরনের কষ্ট এবং বিরহের এসএমএস সম্পর্কে যা অবশ্যই আপনার মন কাড়বে।

নিস্তব্ধ নিশিতে বিষাক্ত স্পর্শের আহরিত আর্তনাদ,তাতে তার ক্ষুদা মেটে।
উলঙ্গ করে দেহ শরীরটা,অস্পষ্ট দাত আর আচঁড়ের দাগগুলো কিসের?
কোন হিংস্র হায়েনার নয়, পবিত্র(!) সম্পর্কের'
অস্পষ্ট অনুভূতি, মস্তিষ্ককে চুষে বেরানো কিছু বেওয়ারিশ চিন্তা।
- মুছে ফেলে দিতে চাওয়া ঘ্লানী গুলো ধোয়া হয়ে বাতাসে মিলিয়ে যাওয়া।
--মধ্য রাতে খুব শুনতে ইচ্ছে করে,
-একটু পরেই সকাল হবে, এবার ঘুমোও।.
তারপর কেটে যাবে অনেক বছর,
শরীরের চামড়াতেও পড়বে বয়সের ছাপ,
বদলাবে প্রিয় অভ্যেসগুলো,
জীবনে জড়াবে আরও অনেক মানুষ,
তবুও মনের কোনো এক জায়গায় কিছু স্মৃতি থাকবে স্বযত্নে অম্লান,
যেমন করে মানুষ খুব সাবধানে সংরক্ষন করে রাখে নথিপথ,
তেমন করেই মন আর মগজের একপাশে পড়ে থাকবে তুমি নামক মানুষটা,
যাকে সত্যিই নিজের করে পেতে চেয়েছিলাম সম্পুর্ণভাবে। সম্পুর্ণভাবে।
অনেকদিন তোমায় লিখিনি,
প্রতিউত্তরে কেবল দুকলম নিরস 
শব্দ প্রসব করে খামভর্তি যে তাচ্ছিল্য পাঠিয়ে দাও,
কেবল তার ভয়ে--
অনেক কিছু লিখবো ভেবেও লিখিনি ৷
ডায়েরী জুড়ে অনেক রঙা প্রজাপতি আর 
কাঠফাঁটা রোদে চিলের ছায়া জমেছে ৷
লোডশেডিং এর রাতে পুরোনো গলির
ওই সিগারেটের ধোয়া
আর রিকশাগুলোর টুংটাং শব্দ জমেছে,
জমেছে তোমার না থাকাকে কেন্দ্র করে 
মনের অলি-গলি,রাজপথ ভাসানো 
স্লোগান, মিছিল ৷ 
কতো শতো গান যে জমা হয়েছে ৷ 
তবু লিখিনি ৷
যেদিন খাম খুলে প্রথমেই এক সমুদ্র 
ভালোবাসা আছড়ে পড়বে আমার আঁচল জুড়ে, যেদিন হাওয়ায় মৃদু দোলা খাবে ওই অবাধ্য চুল তোমার দেয়া খাম খুলতেই,
সেদিনই কেবল জমানো শব্দগুলো 
পাঠাবো ৷
নয়তো শব্দেরা পড়ে রবে নীল ডায়েরীর
নীলাভ আঁধার তলে,
দেখে নিও:)
কয়েক লক্ষ্য সেকেন্ড কেটে গেছে। এর মধ্যে আমি তোমাকে কয়েক কোটিবার মনে করেছি। তোমাকে শেষ দেখার প্রতিটা মুহূর্ত আমার মনে আছে। তুমি এসেছিলে কুয়াশা ভরা ভোরে প্রিয় নীল শাড়িতে, হাতটা চেপে পাশাপাশি দাঁড়িয়েছিলে ময়ূরাক্ষীর তীরে। আমরা একটা নতুন ভোরের সাক্ষী হয়েছিলাম সেদিন। তুমি অপলক বৃথায় চেয়েছিলে, রক্তবর্ণ ধারণ করা সূর্যের দিকে। আর আমি চুপিচুপি চেয়েছিলাম তোমার মায়া ভরা মুখটার দিকে, তুমি খেয়াল করো নি! এতগুলা দিন চলে গেল, তুমি একটিবার মনেও করো নি।।
তোমার সাড়া না পেয়ে একদিন বিড়ির ধোয়া উঠে থাকবে।
রাস্তার পাশে ফিল্টার পড়ে থাকবে।
সুখটানের কথা কেউ আর বলবে না!
কখনও কখনও ছাদের কার্নিসে দাড়িয়ে  মৃত্যুকে মনে হয়,সমুদ্রের মতো উদ্দাম হাওয়ায় উড়তে থাকা তোমার চুল!
পোস্টঅফিসের পিয়নটা বোধহয় খুব অসুস্থ। 
তাই আর এ শহরে চিঠি আসে নাহ.
পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন কাজ হল মানুষের মনের সত্যিকারের ভালবাসা অর্জন করা”তাই কখনো যে মানুষটা আপনাকে তার সেই বিশ্বাসপূর্ণ সত্যিকারের ভালবাসাটা দিয়ে দিল-তাকে কখনো অবহেলা করবেন না ।।আপন মানুষটাকে দূরে ঠেলে দিবেন না।।তখন তার মনের মৃত্যু হবে নিশ্চিত !!মনে রাখবেন- আপনার চারপাশে ভালবাসার অভাব নাও থাকতে পারে,তবে সত্যিকারের ভালবাসার এই পৃথিবীতে বড়ই অভাব।
অনেকটা পথ হেঁটে এসেও হয়নি হাঁটা তোমার পাশে..জানালাটায় মাথা রেখে ঘুমিয়ে পড়ি গল্প শেষে..।তবুও কারো প্রশ্নের জবাবে ঠোঁটের কোণে নিষ্প্রাণ হাসি ঝুলিয়ে বলি,“এই বেশ ভালো আছি.....!

 

অভিমান বেশী সময় বাঁচিয়ে রাখতে নেই...! বহু বছর পর অভিমান ভাঙলে, গিয়ে দেখবে যার সাথে অভিমান সে আর নেই...! হয়তো দূরে কোথায় ও হারিয়ে গেছে...! আর তখন Sorry বলার সুযোগ টুকু ও হারিয়ে যাবে...!!!
আজ না খুবএকা একা লাগছে চোখের সামনে তুমি তবু যেন তোমাকে ছোয়া যায় না কেন এমন হয় বলোতো!ভালবাসা বুঝি শুধু কষ্ট দিতেই জানে!তোমাকে ছাড়াযে আমার নিশ্বাস নিতেও কষ্ট হয়!
আবেগের কাছে আমি স্বাথপর।বিবেকের কাছে আমি পরাজিত।বাস্তবের কাছে আমি সপ্নহীন।জীবনের কাছে আমার সব অভিনয়।আর আমার মাঝে আমি সিমাহীননিঃস্ব একজন।
আমার একসাথে চলার পথ শেষ হয়ে গেছে সেই কবে আমি শুধু তাকিয়ে ছিলাম মরিচিকার পানে তুমি চলে যাও তোমার নতুন পথের দিকে আমি চেয়ে থাকি নির্বাক নতমুখে..!!.
আমার জীবনের সবচেয়ে বড় সত্য হচ্ছে তুমি আমাকে ছেড়ে চলে গেছো ভুলে গেছো,কখনো মনে করোনা আমায় আর সবচেয়ে বড়মিথ্যে টুকু হলো “আমি তোমাকে ভুলে গেছি ভুলে গিয়ে সুখে আছি!
আমি জানি তুমি ফিরবেনা আর ধরবেনা এ হাত!!তবু অপেক্ষায় থাকি, থাকতে ভাল লাগে।।তুমি হয়তো জানো না,কিছু পাবো না জেনেও অপেক্ষা করার মাঝে অনেক আনন্দ আছে, আছে একটা স্বস্তি !!কারন, অন্তত আর হারানোর ভয় থাকে না সেই অপেক্ষার চিন্তার মাঝে ..
আমি তো চাইনি হতে তোমার দু:খের কোন কারণ,চাইনি হতে রাত জাগা ওই তারার মত জেগে থাকো অকারণ,চাইনি হই তোমার চোখের কোণে শুকিয়ে যাওয়া জলের কোন ধারা,চাইনি হই তোমার ভাগ্যর কোন নির্মম ছলনা .
আমি তোমার মধ্য রাতে—ডুকরে কাঁদার কারণ,আমি তোমার সেই কথা যা—কাউকে বলা বারণ ! আমি তোমার ভাগ্য রেখা—আমিই সেটার গণক,আমি তোমার প্রতি ফোঁটা—অশ্রু জলের জনক..
আমি যখন তোমার নামমাটিতে লিখলাম,,বৃষ্টিতে ভিজে গেলো ...আকাশে লিখলাম,,আকাশমেঘে ঢেকে গেলো ...কিন্তু যখনই হৃদয়ে লিখলাম ,,ঠিক তখনই তুমি আমায় ভুলে গেলে...
একটা সময় হারিয়ে যায়,অনেক সময়ের মাঝে.... একটা সম্পর্ক হারিয়ে যায় একটা কথার ভুলে....একটা মন ভেঙ্গে যায় ছোট্ট অপমানে!!....একটা জীবন শেষ হয়ে যায় একটু অভিমানে..
একাকীত্ব তোমাকে জীবনের চরম সেই শিক্ষাটি দিয়ে দেবে .যেটা তোমাকে জীবনের বাকি পথগুলো চলতে সাহায্য করবে .
কষ্টে তো কষ্টই থাকে।কিনতু সেই কষ্টে অন্য কিছুর ছোঁয় মনে হয়,যখন ভালোবাসার মানুষটি কষ্ট দেয়।আবার,সকল কষ্টকেই তুচ্ছ মনে হয়,যখন সেই কষ্ট দেবার মনুষটিই ভালোবেসে জন বলে ডাকে।
কাউকে কাঁদিয়ে যদি নিজেকে বড়ভাবো,তাহলে সেটাই হবে সবচেয়ে বড়ভুল।কারন বিধাতা একান্তই কারো জন্য কষ্টসৃষ্টি করে রাখেনি।মনে রেখো অভিশাপবলে একটি কথা আছে,আর তোমারদেওয়া কষ্টের অভিশাপে তুমিও একদিন কাঁদবে।
কাল সারারাত তোমায় ভেবে কেদেঁছি ,তোমায় ছাড়া থাকতে হবে তা মেনে নিয়েছি তুমি সুখে থাকো আমায় ছাড়া এর বেশি চাইনা কিছু আর ..
কেউ যদি অভিমানে তোমার সাথে কথা না বলে,, বুঝে নিবে সে তোমায়আড়ালে মিস করে.. আর কেউযদি না দেখে কাঁদে,, বুঝে নিবে সে তোমায়ভীষণ ভালবাসে.
ঘৃনা আর ভালবাসার দুরত্ব বুঝি বেশী নয়।মানুষের মনে তারা পাশাপাশি দুটিপাখির মত বাস করে।একজনকে ডাকদিলে অন্যজনও ডেকে ওঠে।
সেই রাজকন্যা
 তুমি সেই কবিতা ! যা প্রতি দিন ভাবি.... লিখতে পারিনা॥ তুমি সেই ছবি! যা কল্পনা করি.... আঁকতে পারি না॥ তুমি সেই ভালবাসা! যা প্রতিদিন চাই.... কিন্তূ তা কখনো-ই পাই না। তুমি আমার সেই রাজকন্যা যাকে সপ্নে দেখেছি কখনো পাইনি খুঁজে।
শুধু তারি ছবি আঁকি 
একা একা সারাহ্মন পথ চেয়ে থাকি¤ কল্পনাতে শুধু তারি ছবি আঁকি¤ বর্ষারকাব্য লাগেনা যে ভালো¤ তাকে শুধুমনে পড়ে
চেনা মধ্য রাতে অচেনা এই আমি যার কোন উদ্দেশ্য নেই নেই কোন স্বপ্ন !!নেই কারো প্রতি আর গভীর কোন টান নেই আর মমতা ,নেই কোন দায়িত্ববোধ নেই আর কারো প্রতি বিন্দুমাএ ভালবাসা আছে শুধু সীমাহীন এক বুক শুন্যতা !
জীবনে অনেক কিছু হারিয়েছি...হারাতে হারাতে আজ আমি বড় ক্লান্ত ...,,এখন আর হারানোর ভয় করি না...কারন পৃথিবীতে যার কিছু নাই তার কোন কিছু হারানোর ভয়ও নাই..
পাখি তুই বুঝলি নারে আমার মনের কথা । বুঝার মতো হয়নি তোর ক্ষমতা । বুঝবি সেদিন যে দিন আমি থাকবো না যাবো মরে । তখন সারাজীন কেঁদে যাবে পাবেনা আমায় ।
ভালবাসা হলো এমন একটি মায়া, তুমি যত দুরে যাবে ততই কাছে টানবে, যত ভুলে যাবে ততই মনে পড়বে, আর যতটুকু হাসবে তার থেকে বেশি কাঁদবে।
ভুল তোমার ছিলো তুমি বুঝতে পারোনি, রাগ আমারও ছিলো, কিন্তু আমি দেখায় নি। ভুলে যেতে আমিও পারতাম, কিন্তু চেষ্টা করিনি ! কারন ভুলে যাওয়ার জন্য তোমায় ভালোবাসি নি…
অবাক পৃথিবীতে বাস করি, ভালোবাসার কথা বলার মতো দুই একজন থাকলেও তা বোঝার মতো কেউ নাই।
শুভেচ্ছা জানাই তোমাকে, কষ্ট দেওয়ার জন্য। তোমার এ কারণে আমার জীবন হলো ধন্য। তোমার কষ্ট পূজা করে, আমার বুকের মাঝে, জীবনকে সাজিয়ে নিলাম আমি গানের মাঝে। 
শুভেচ্ছা জানাই তোমাকে, কষ্ট দেওয়ার জন্য। তোমার এ কারণে আমার জীবন হলো ধন্য। তোমার কষ্ট পূজা করে, আমার বুকের মাঝে, জীবনকে সাজিয়ে নিলাম আমি গানের মাঝে। 
শুভেচ্ছা জানাই তোমাকে, কষ্ট দেওয়ার জন্য। তোমার এ কারণে আমার জীবন হলো ধন্য। তোমার কষ্ট পূজা করে, আমার বুকের মাঝে, জীবনকে সাজিয়ে নিলাম আমি গানের মাঝে।
ভালোবাসায় শুধু কষ্ট আর কষ্ট,এখানে সুখের চেয়ে দুঃখটায় বেশি থাকে। 
তোমাকে কাঁদিয়ে যদি কেউ হাসে,তাহলে সেটা তোমার ব্যার্থতা নয়,সেটা তোমার সফলতা। কারন সে তোমার জন্যই হাসছে,নিজের জন্য পারেনি… 
খালি হাতে এসেছি, খালি হাতে যাবো, ভাবিনি এই পৃথিবীতে এত কষ্ট পাবো,বন্ধু বলো বান্ধবী বলো কেউ আপন নয়, ক্ষনিকের মেলা-মেশা সবি আভিনয়।
আকাশ অভিমান করলে বৃষ্টি হয়, যদি অভিমান করলে বন্যা হয়, চাঁদ অভিমান করলে অমাবস্যা হয়, আর তুমি অভিমান করলে আমার খুব কষ্ট হয়।  
আমার ভালোবাসায় কোনো জটিলতা ছিলো না____জটিলতা ছিলো তোমার মনের ভিতরে____ভালোবাসা আমায় ছেরে চলে যায় নি____তুমি আমাকে ছেড়ে চলে গেছো____
তুই তোর মত করে ভালবাসিস অন্য কাউকে, আজ আমি আমার থেকে মুক্তি দিলাম, স্বপ্ন নিয়ে যাস. অন্য আকাশে উড়ে দেখিস, সুখটা কাকে বলে? ক্লান্ত হলে ফিরে আসিস, আমার চেনা ঘরে. কখনো যদি চখের পাতা, ভিজে যায় জ্বলে, বুজতে পারবি পাঁজর ভাঙ্গার, কষ্ট কাকে বলে..!! .
পাহাড়ের উপর দারিয়ে আকাশ কে যতটা কাছে মনে হয়, আকাশ ততটা কাছে নয়। ঠিক তেমনি কোন মানুষ কে যতটা আপন মনে হয়, আসলে সে কখনো ততটা আপন নয়। .
তোমাকে মনে পড়ে না এমন কোনো মুহূর্ত নেই । আর বৃষ্টি হলেতো মনকে ধরেই রাখতে পারি না । মনের জমানো সব কষ্ট বৃষ্টির ফোঁটার সাথে চোখ দিয়ে গড়িয়ে পড়তে চায় । আজ ও সেই বৃষ্টি হচ্ছে, বৃষ্টির সাথে কেমন যানো একটা গভীর সম্পর্ক তৈরী করে ফেলেছি নিজের অজান্তেই । তাই তো বৃষ্টির পানির সাথে মিশে একাকার হয়ে গেলো আমার চোখের বৃষ্টি ! 
মনে কষ্ট নিয়ে বসে আছি আমি, ভাবছি শুধু তোমার কথা কোথায় আছো তুমি। তুমি কেন এভাবে কাঁদালে আমায়, সেদিন তো বলেছিলে কোনোদিনও ভুলবেন আমায়!

 

সবুজ বনের ছোট্ট পাখি, অবুঝ তার মন, কেউ জানেনা জগৎ জুড়ে কে তার আপনজন, আপন মনে ঘুরে বেড়ায় নীল আকাশের বুকে, তাইতো নিজে দুঃখী হয়েও সুখী সবার চোখে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × two =

close
Scroll to Top
Share via
Copy link